অক্সফোর্ড ইউনিয়নে বক্তৃতার ডাক পেলেন মুখ্যমন্ত্রী

ফোর্থ পিলার

এবার ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড ইউনিয়নে আমন্ত্রণ পেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। করোনা সংকটের কারণে ভার্চুয়াল সভা হবে। সেখানে বক্তব্য রাখবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই আমন্ত্রণবার্তা সুদূর ইংল্যান্ড থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এসে পৌঁছেছে। বুধবার ইউনিয়নের তরফ থেকে সেই বার্তা আসার খবর পাওয়া গিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই আমন্ত্রণে যথেষ্ট খুশি।

মুখ্যমন্ত্রী এই বক্তৃতা সভায় অংশগ্রহণ করবেন। এমনটাই ঘনিষ্ঠমহলে জানিয়েছেন বলে এখন অবধি খবর। তিনি এই সভায় বক্তব্য রাখবেন বলে মোটামুটি নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। গোটা পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গা থেকেই গণ্যমান্য ব্যক্তিরা ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ড ইউনিয়নে সভায় বক্তব্য রাখেন। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই আমন্ত্রণ কাজেই এক পরম সম্মানের প্রাপ্তি। এই বছর করোনা ভাইরাসের কারণে সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি হবে ভার্চুয়াল।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বক্তব্যের বিষয় ঠিক করতে বলা হয়েছে। নিজের পছন্দসই বিষয়ে বক্তব্য রাখতে পারবেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামী বছর ৯ জানুয়ারি থেকে ১৫ মার্চের মধ্যে যে কোনও দিন এই বক্তব্য মুখ্যমন্ত্রী রাখতে পারেন। এই খবর আসার পরে তৃণমূল শিবিরে যথেষ্ট খুশির মেজাজ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উচ্চারণ নিয়ে বিরোধী শিবিরে একাধিক কটু কথা, আক্রমণ শোনা যায়।

সিপিএম বিধায়ক সূর্যকান্ত মিশ্র একটি টুইটে মুখ্যমন্ত্রীর উচ্চারণ নিয়ে একটি ব্যঙ্গাত্মক লেখা পোস্ট করেছিলেন। সেই পোস্ট ভিড়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছিল। কোনও মানুষের উচ্চারণের সমস্যা থাকতে পারে। কিন্তু তা বলে তাকে এই ভাবে আক্রমণ করা সঠিক কিনা! সেই বিষয়ে আড়াআড়ি দু’পক্ষ ভাগ হয়ে গিয়েছিল। এবার মুখ্যমন্ত্রী অক্সফোর্ড ইউনিয়নে বক্তব্য রাখতে চলেছেন। কার্যত বিরোধীদের মুখে আরও একটি সপাটে জবাব এই আমন্ত্রণ। এমনটাই মনে করছে শাসক শিবির।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।