অপহৃত পাঁচ যুবককে ফিরিয়ে দিল চিন

ফোর্থ পিলার

চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত নতি স্বীকার করল চিন। অরুণাচলের পাঁচ অপহৃত যুবককে ফিরিয়ে দিল পিপলস লিবারেশন আর্মি। গতকাল শুক্রবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছিলেন চিনের সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসূ। আজ শনিবার পাঁচ যুবককে ফিরিয়ে দেবে চিন। সেইমতো সকালে কিথিবু বর্ডার দিয়ে ওই পাঁচজনকে দেশে পাঠানো হয়েছে। প্রায় এক ঘন্টার উপর সময় লেগেছে সীমানা পার করতে।

গত শনিবার ওই পাঁচ যুবক জঙ্গলে গিয়েছিলেন। পিপলস লিবারেশন আর্মির লোকজন তাদের পাকড়াও করে নিয়ে চলে গিয়েছিল চিনের মধ্যে। এমনিতেই লাদাখ সীমান্ত নিয়ে দুই দেশের মধ্যে এই মুহূর্তে উত্তেজনা চলছে আন্তর্জাতিক মহলে। পাঁচ ভারতীয়কে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা আরও ইঙ্গিতপূর্ণ হয়েছিল। ভারতের পক্ষ থেকে ক্রমে চাপ বাড়ানো হয়। দুই দেশের বিদেশমন্ত্রক আলোচনায় বসে। অরুণাচলের বাসিন্দা টাগিন জনজাতির ওই পাঁচ যুবককে অবিলম্বে ছাড়তে হবে। এই দাবি তোলা হচ্ছিল।

অরুণাচলের পুলিশ জানায়, নিখোঁজ হওয়া যুবকরা জঙ্গলে গুম্বা নামে একপ্রকার গুল্ম সংগ্রহ করতে গিয়েছিল। এই গুল্ম জাতীয় ভেষজ উদ্ভিদ আন্তর্জাতিক বাজারে চড়া দামে বিক্রি হয়। জঙ্গলে সীমান্ত নির্দিষ্ট নেই। তাঁরা চিনা বাহিনীর মুখোমুখি পড়ে। তাঁরা সাতজন ছিল। পাঁচজনকে তুলে নিয়ে যায় চিনা সেনারা। টোচ সিংকাম, প্রসাদ রিংলিং, ডোংটু এবিয়া, টানু বাকের ও গারু দিরি। এই পাঁচজনকে আটকে রাখা হয়েছিল।

অপহৃতদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে? ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাহায্য চায় অরুণাচল পুলিশ। পিএলএ বাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ করে ভারতীয় সেনা। অপহরণের অভিযোগ মানতে চায়নি পিপলস লিবারেশন আর্মি। অরুণাচলের সীমান্ত নিয়ে চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান ফের বিতর্কিত মন্তব্য করেন। অরুণাচলপ্রদেশ কোনওদিন ভারতের ছিল না। এই এলাকাকে দক্ষিণ তিব্বতের অংশ হিসেবে চিন জানে। ফের এই কথা ওঠে। পাঁচ ভারতীয়ের অপহরণের অভিযোগও অস্বীকার করা হয়।

দুই দেশের মধ্যে কথা চলছিল। চিন শেষপর্যন্ত স্বীকার করে পাঁচ ভারতীয়কে নিয়ে যাওয়ার কথা। গতকাল তাদের ফিরিয়ে দেওয়ার সবুজ সংকেত পাওয়া যায়। আজ শনিবার যে কোনও সময় তারা সীমান্ত পার করবে। এই তথ্য এসেছিল ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে। টাজিন জনজাতির ওই পাঁচ যুবক এই মুহূর্তে সুস্থ রয়েছেন। নাচো সেক্টর সেরা ৭ এলাকা থেকে দিয়ে তাদের তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে খবর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।