আব্বাস সিদ্দিকীকে ‘গদ্দার’ ‘অপদার্থ’ বলে আক্রমণ মমতার

ফোর্থ পিলার

গতদিন বলেছিলেন ‘চ্যাংড়া’। এদিন বললেন গদ্দার’। ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের নেতার আব্বাস সিদ্দিকীকে ফের আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফুরফুরা শরিফের মানুষদের সম্মান করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এই ক্ষেত্রে কোনও বিশেষ উদ্দেশ্য আছে আব্বাদ সিদ্দিকীর। এই কথা দাবি করছেন তৃণমূল নেত্রী। সংযুক্ত মোর্চাকে ভোট দেওয়া উচিত নয়। এই কথায় জোর দিলেন মমতা।

এদিন দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙরে সভা করেন মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপির পাশাপাশি নিশানায় ছিল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টও। আইএসএফের প্রধান আব্বাস সিদ্দিকীকে ফের আক্রমণ করলেন তিনি। এদিন মমতা বলেন, “হঠাৎ করে একজন সংখ্যালঘু নেতা হয়ে গিয়েছেন। সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করে বেড়াচ্ছেন।” এরপরই তৃণমূল নেত্রী বলেন, “ভাঙড়ের ওরা যেন একটা ভোটও না পায়। আমি ফুরফুরা শরিফকে সম্মান করি। কিন্তু সবাই তো সমান নয়। ও অপদার্থ।”

বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে আইএসএফের। রাজ্যের সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্কে ফাটল ধরানোর জন্য মিম এসেছে। সেই একই লক্ষ্য রয়েছে আইএসএফের৷ কোনওভাবেই যাতে তারা ভোট না পায়, সেদিকে বারবার আবেদন করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন মমতা বলেন, “অনেকে বলেন, আমি মুসলিমদের জন্য বেশি ভাবি। কিন্তু আমি হিন্দু-মুসলিম উভয়ের জন্যই রয়েছি। আমি না থাকলে কেউ ভাল থাকত না। আমি নিজে হিন্দু পরিবারের। ছোট থেকে শিখেছি সকলকে ভালবাসতে।” 

গতদিন ‘ফুরফুরার চ্যাংড়া’ বলে কটাক্ষ করেছেন মমতা। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “হায়দ্রাবাদ থেকে বিজেপির এক বন্ধু এসেছে। সঙ্গে নিয়েছে ফুরফুরার এক চ্যাংড়াকে। ওরা কয়েক কোটি টাকা খরচ করে মুসলিম ভোট ভাগাভাগি করার চেষ্টা করছে। সংখ্যালঘু ভোট ভাগ করার চেষ্টা করছে। ওদের একটাও ভোট নয়। ওদের একটা ভোট দেওয়া মানে বিজেপিকে ভোট দেওয়া।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।