ইডেন পেতে পারে ভারত- ইংল্যান্ড একদিনের সিরিজের ম্যাচ

ফোর্থ পিলার

ভারত- ইংল্যান্ড একদিনের সিরিজের ম্যাচ পেতে পারে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স। চতুর্থ টেস্ট খেলার পর একদিনের সিরিজ রয়েছে। আর তাতেই নাম উঠে আসছে ইডেনের। মহারাষ্ট্রের পুণেতে একদিনের ম্যাচ হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মারাঠা রাজ্যে ফের উর্ধ্বমুখী। তাই একদিনের ম্যাচ পুণে থেকে সরে যেতে পারে। এক্ষেত্রে ইডেন ম্যাচ পেতে পারে। তবে চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামেও ম্যাচ যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

আমেদাবাদে খেলা চলছে। এরপর চতুর্থ টেস্ট শুরু হবে। তারপর একদিনের সিরিজ শুরু হবে। ২৩, ২৬, ২৮ মার্চ একদিনের সিরিজের নির্ঘণ্ট ঠিক করা হয়েছে। সেই ম্যাচ পেয়েছিল পুণে। কিন্তু মহারাষ্ট্রতে করোনা গ্রাফ ফের বাড়ছে। তাই কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছে না বিসিসিআই। এই হিসেবেই ইডেনে ম্যাচ আসতে পারে। অন্যান্য মাঠে বিজয় হাজারে ট্রফি চলছে। তাই একাধিক মাঠে নজর দেওয়াও হচ্ছে না এবার। দ্বিতীয় টেস্ট থেকে দর্শকদের উপস্থিতি থাকছে। ৫০ শতাংশ দর্শক উপস্থিত ছিল মোতেরা স্টেডিয়ামে। তাই খেলার রূপও বদলে গিয়েছে।

পুণের মাঠেও দর্শক থাকবে ৫০ শতাংশ। কিন্তু করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে দর্শকদের নিয়েও দুশ্চিন্তা আছে। এক্ষেত্রে ইডেন বিসিসিআইয়ের অন্যতম পছন্দ। ইডেনে অনেক বেশি দর্শকাসন আছে। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা যাবে। দর্শকদের আসন নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে ঠিক করা যাবে। চিন্নাস্বামীতে দর্শক আসনে কিছুটা কম। তাই ইডেনকে বেছে নেওয়া হতে পারে। এছাড়াও অন্য একটি কারণ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সৌরভ এই মুহূর্তে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। তাই ঘরের মাঠ কে প্রাধান্য দেওয়া হতে পারে।

গত দু’বছরে বেশ কিছু ভালো ম্যাচ পেয়েছে ইডেন। ভারতে গোলাপি বলে টেস্ট শুরু হয়। দর্শকরা যথেষ্ট উপভোগ করেছে সেই খেলা। ইডেনের পরিবেশ আন্তর্জাতিক মহলেও যথেষ্ট নজর কেড়েছে। ইডেনের পিচ খেলার জন্য অত্যন্ত সহায়ক। বিদেশের ক্রিকেটাররাও ইডেনের মাঠে খেলার জন্য মুখিয়ে থাকেন। শেষ পর্যন্ত ইডেনকে বেছে নেওয়া হতে পারে।

তবে একটি প্রশ্নচিহ্ন রয়েছে। রাজ্যে ২৭ মার্চ প্রথম দফায় ভোটগ্রহণ। এদিকে ২৬ ও ২৮ মার্চ ক্রিকেটের ম্যাচ নির্ধারিত হয়েছে। সেক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হবে কি? ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কারণ প্রথম দফায় ভোট পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর বাঁকুড়া এলাকায়। কলকাতায় ম্যাচ হলে কোনও রকম সমস্যা হবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।