একলাফে কলকাতার পারদ নামল তিন ডিগ্রি

ফোর্থ পিলার

এক লাফে কলকাতা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে গেল তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ সন্ধ্যা থেকেই হাড় কাঁপানো ঠান্ডা আরও একবার অনুভূত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা সফর ঘিরে আজ রাজনৈতিক আবহাওয়া উত্তপ্ত। কিন্তু তার প্রভাব পড়েনি কলকাতার পারদ নামাতে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর আগেই জানিয়েছিল, শনিবার থেকে কলকাতার আশেপাশে জেলার তাপমাত্রা কমবে। তাপমাত্রা কমে গেল অনেকটাই৷

আজ শনিবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল বেড়েছে ১২.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ কমে গিয়েছে অনেকটাই। আজ সকাল থেকেই কলকাতার আকাশে মেঘ ও কুয়াশা দেখা গিয়েছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মেঘ ও কুয়াশার চাদর সরে যায়।

বেশ অনেকটা সময় জুড়েই দক্ষিণবঙ্গের আশেপাশে জেলাগুলির তাপমাত্রার পারদ বাড়ছিল। আজ হাওড়া, হুগলি, নদিয়ার প্রান্ত্রিক এলাকাগুলোতে বেশ ভালোই ঠান্ডা অনুভব হচ্ছে। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি নিচে নেমেছে বলে খবর। বীরভূম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, মেদিনীপুর প্রভৃতি জেলার তাপমাত্রা এই মুহূর্তে ১০ ডিগ্রির নিচে রয়েছে কলকাতার তাপমাত্রা আরও অনেকটা নামবে রাতের দিকে।

এদিকে উত্তরবঙ্গের তাপমাত্রা খুব একটা পরিবর্তন হয়নি রাজস্থান অঞ্চলে একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা দেখা দিয়েছে যার ফলে খুব একটা তাপমাত্রা কমছে না উত্তর ভারতের। তবে পরিস্থিতি এখনও শীতের অনুকূলে রয়েছে। পৌষ সংক্রান্তি পর্যন্ত ঠান্ডা বিরাজ করবে বলে খবর।

শুধু কলকাতায় নয় দক্ষিণবঙ্গ পশ্চিমের জেলাগুলিতে তাপমাত্রার পারদ নামবে অনেকটাই। ডিসেম্বরের শেষবেলায় বেশ ভালো ব্যাটিং করেছিল শীত। বর্ষবরণের সময় থেকে তার ছন্দপতন হয়। এখনও শীত খুঁড়িয়ে চলছে। পৌষ সংক্রান্তির পরে আরও একবার শীত চালিয়ে খেলে কিনা তা নিয়ে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে। তবে আশা করছেন আবহবিদরা, যাওয়ার আগে শেষবেলায় তার অবস্থান জানিয়ে যাবে শীতকাল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।