পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি, কফি হাউসে বন্ধ হলো ‘অনিয়ন পাকোড়া’

ফোর্থ পিলার ; পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝের কারনে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ইন্ডিয়ান কফি হাউসে বন্ধ হয়ে গেলো বিখ্যাত ‘অনিয়ন পাকোড়া’। সেইসঙ্গে কফি হাউসের বিভিন্ন পেঁয়াজ নির্ভর খাদ্য তালিকাতেও পড়েছে ছাটাইয়ের কোপ। গোটা দেশ জুড়ে এখন পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কারনে গেরস্থ বাড়ি থেকে থেকে নামি দামী রেস্টুরেন্ট মালিকদের এখন মাথায় হাত। আগে সপ্তাহব্যাপী যা পেঁয়াজ লাগতো, এখন তার অর্ধেকের অর্ধেক কিনতে হচ্ছে। নিদেনপক্ষে না দিলেই নয়, এমন তরকারিতে দেওয়া হচ্ছে পেঁয়াজ।

পেঁয়াজের দুর্মূল্যের কারনে খাস কলকাতার কফি হাউসের বিখ্যাত ডিশ অনিয়ন পকোড়া এখন কার্যত উধাও। তার সঙ্গে সঙ্গে মাটন আফগানি, চিকেন আফগানি, বেকড ফিশও আপাতত ‘রিজার্ভ বেঞ্চে’। রান্নায় বেশি পেঁয়াজ দরকার হওয়ার কারনে এই মেনুগুলির বিক্রি এখন বন্ধ থাকবে বলেই কফি হাউস কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে। পেঁয়াজের চড়া দামের কারনেই মেনু থেকে ‘অনিয়ন পকোড়া’ বাদ দিয়ে দিল ইন্ডিয়ান কফি হাউস।

কলকাতার বইপাড়ায় গিয়ে কফি হাউসে বসে অনিয়ন পকোড়া চেখে দেখেননি, এমন লোকের সংখ্যা খুবই কম। যাঁরাই কফি হাউসে এসেছেন, তাঁদের প্রথম পছন্দ অনিয়ন পকোড়া। ৩২ টাকা অনিয়ন পকোড়া দৈনিক বিক্রিও হয়েছে শতাধিক প্লেট, জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

তাদের বক্তব্য, পেঁয়াজের আকাশছোঁয়া দামবৃদ্ধিতে আর সামাল দেওয়া যাচ্ছে না। তাই ‘সিগনেচার ডিশ’ হওয়া সত্ত্বেও শুক্রবার থেকে অনিয়ন পকোড়া বিক্রি বন্ধ করে দিতে হল। দাম কমলে আবার তা চালু করয়াজে বলে জানানো হয়েছে। কপফি হাউসে এটাই অবশ্য প্রথম নয়। বছর কয়েক আগে পিঁয়াজের দামবৃদ্ধিতে একবার দু’চার দিনের জন্য অনিয়ন পকোড়া বিক্রি বন্ধ রাখা হয়েছিল বলে দাবী কফি হাউস কর্তৃপক্ষের। তবে এবার যেভাবে দাম বৃদ্ধির রেকর্ড পেঁয়াজ প্রতিদিনই ভাঙছে, তাতে কবে আবার কফি হাউসে অনিয়ন পকোড়া চালু হবে কিনা, তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না কেউই।

কলকাতার ঐতিহ্যাবাহী ইন্ডিয়ান কফিহাউসে মাটন আফগানি, চিকেন আফগানি, বেকড ফিশও আপাতত বিক্রি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। কফি হাউসের আধিকারিকদের বক্তব্য, বিভিন্ন আইটেমের জন্য প্রতিদিন ৪০ কেজি করে পেঁয়াজ লাগে। কয়েকটি মেনু বাদ দিয়ে এখন দিয়াজ১৫ থেকে ২০ কেজি পেঁয়াজ কিনে চালানো হবে। আর স্যালাডে শসা, বিট, গাজর বেশি থাকবে। স্যালাডে পেঁয়াজ নামমাত্র ছোঁয়ানো হবে। যাতে পেঁয়াজের গন্ধটা অন্তত থাকে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।