করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের ফাঁস দেওয়া দেহ উদ্ধার বাড়িতে

ফোর্থ পিলার

করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হল বাড়ি থেকে। সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছিলেন ওই বৃদ্ধ। সম্প্রতি তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। আজ শনিবার সকালে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ ও পরিবারের অনুমান ওই বৃদ্ধ মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন। তাই আত্মহত্যা করলেন। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কলকাতার রিজেন্ট পার্ক থানা এলাকায়।

পূর্ব পুটিয়ারির ১৪ নম্বর বাবুপাড়া এলাকায় বাসিন্দা ছিলেন ওই বৃদ্ধ। বয়স ৮১ বছর। শরীরে একাধিক অসুস্থতা দেখা দিচ্ছিল। করোনার সংক্রমণ দেখা যায়। গত ২৯ তারিখ তার করোনা ভাইরাস রিপোর্ট আসে। দেখা যায় তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা শুরু হয়েছিল। শনিবার সকাল থেকে ওই বৃদ্ধ সাড়া দিচ্ছেন না। ঘরের দরজা বন্ধ ছিল।

শেষ পর্যন্ত পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকে৷ দেখা যায় গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ওই বৃদ্ধ ঝুলছেন। মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন। তাই করোনা রোগীদের নিয়ম মেনে বাকি কাজকর্ম হবে। একথা পুলিশের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরেই তাঁর মানসিক অবসাদ তৈরি হয়েছিল। সেখান থেকেই এই কঠিন সিদ্ধান্ত তিনি নিতে পারেন। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।

এর আগে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে এক বৃদ্ধ আত্মহত্যা করেছিলেন। তিনি সুস্থ হয়ে উঠছিলেন অনেকটাই। তবুও মানসিক অবসাদ তাকে গ্রাস করে। শেষপর্যন্ত আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি। এই ক্ষেত্রেও মানসিক অবসাদ বৃদ্ধ সহ্য করতে পারেননি। মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।