করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রাজ্যে ফের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল

ফোর্থ পিলার

করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে রাজ্যে ফের আসছে কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দল। এই কথা নবান্নকে জানানো হয়েছে। পুজোর আগেই পরিদর্শক দল রাজ্যে আসবে। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি কি অবস্থায় রয়েছে? আগামী সময় কী ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। এই সমস্ত বিষয় নিয়ে তারা কথা বলবেন। রাজ্য সরকারকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সাহায্য করবেন।

পশ্চিমবঙ্গ, কেরালা, কর্ণাটক, রাজস্থান, ছত্রিশগড় এই পাঁচ রাজ্যে কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দল আসছে। এই পাঁচ রাজ্যের করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। সংক্রমণ বাড়ছে প্রতিনিয়ত। রাজ্যগুলি কি ব্যবস্থা নিচ্ছে! সেই সমস্ত দিক তারা শুনবেন। রাজ্যগুলির পক্ষ থেকে টেস্ট – এর সংখ্যা কত? কোমর্বিডিটি বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে কি চিন্তাভাবনা রয়েছে? এইসব কিছু শুনবে পরিদর্শক দলের সদস্যরা। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে যে সব বার্তা রয়েছে, সেগুলো জানানো হবে। রাজ্য সরকারকে গাইড করা হবে। এক্ষেত্রে সমন্বয়ের মাধ্যমে যাতে আগামী পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনা যায়। সেদিকেই লক্ষ্যমাত্রা তৈরি করা হচ্ছে।

কেরল রাজ্যে ওনাম উৎসবের পরে ব্যাপক হারে বেড়েছে সংক্রমণের মাত্রা। পশ্চিমবঙ্গে গত ১৫ দিন ধরে ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ। এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ সংখ্যায় আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে। নভেম্বর মাসে রাজ্যে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হবে। একথা আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা। পুজোতে সাধারণ মানুষ রাস্তায় বেরোলে এক প্রাণান্তকর পরিস্থিতি তৈরি হবে। পুজোর বাজারেগুলিতে মাত্রাছাড়া ভিড় হচ্ছে। এই মুহূর্তে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না কোনওভাবে।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে একথা জানানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী উদ্বিগ্ন এই বক্তব্যতে। পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার জন্য পরিদর্শক দল আসছে রাজ্যে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে কি কি ব্যবস্থা নেওয়া হল? টেস্টের সংখ্যা কত! তা খতিয়ে দেখা হবে। টেস্টের সংখ্যা যাতে অবিলম্বে আরও বাড়ানো যায়, সে কথা জানানো হয়েছে। নবান্নের পক্ষ থেকে এই বিষয় নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

পুজোর আর এক সপ্তাহ বাকি। এই অবস্থায় কবে পরিদর্শক দল আসছে? সেই নিয়েও এখনও নির্দিষ্ট দিনক্ষণ জানা যায়নি। তারা কতদিন রাজ্যে থাকবেন, তাও অজানা। এর আগেও করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করার জন্য কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এসেছিল রাজ্যে। সেই সময় রাজ্য – কেন্দ্র সংঘাত গিয়েছিল চরমে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।