কলকাতায় ফের নয়া স্ট্রেনের খোঁজ, মোট আক্রান্ত ৪

ফোর্থ পিলার

নতুন করে কলকাতায় আরও একজনের শরীরে মিলল করোনার নতুন স্ট্রেনের খোঁজ। অর্থাৎ নতুন ট্রেন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো চার। গত ২০ ডিসেম্বর ব্রিটেন থেকে কলকাতায় যে বিমানটি আসে তাতে ২২২ জন যাত্রী ছিলেন। বিমানবন্দরের সকলেরই কোভিড টেস্ট করানো হয়েছিল। কয়েকজনকে আলাদা করে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল।

তাদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত ছয়জনকে বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি করা হয়েছিল। সংক্রমিতদের শরীরে নতুন স্ট্রেন আছে কিনা জানতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সেই নমুনা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োমেডিকেল জিনোমিক্স (এনআইবিজি) -তে পাঠানো হয়েছিল। সেখানেই জিনের বিন্যাস বের করে চারজন ব্যক্তির শরীরে করোনার নতুন স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে। বাকি দুজনের মধ্যে একজনের এখনও কোনও রেজাল্ট আসেনি। আরেকজনের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে বলা হয়েছে গত ২৫ নভেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বরের মধ্যে ব্রিটেন থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে নেমেছিলেন মোট ৪৩৭১ জন যাত্রী। যাদের মধ্যে ১০৪ জন ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মানুষ। তার মধ্যে ৮৩ জন কলকাতার। সব যাত্রীদেরই রিয়েল টাইম আরটি পিসিআর টেস্ট করানো হয়েছে। সবাইকে সাত দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

তারপরেই ব্রিটেনের সঙ্গে ভারতবর্ষের সমস্ত বিমান বন্ধ করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। আবার বিমান চালু হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, ব্রিটেন ফেরত সকলকেই বিমানবন্দরে আরটিপিসিআর টেস্ট করানো হবে। এবং rt-pcr টেস্টে যেহেতু অনেক সময়ই করোনার নতুন স্ট্রেন ধরা পড়ে না তাই কোন ব্যক্তির ওপর সামান্য সন্দেহ হলেই তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকোয়েন্স এর জন্য পাঠানো হবে। নতুন স্ট্রেন যদি নাও মেলে তাও অন্তত ১৪দিন তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ বায়োমেডিকেল জিনোমিক্স জানিয়েছিলেন, কলকাতায় মেডিকেল কলেজের এক স্বাস্থ্যকর্তার ছেলের শরীরে করোনার সুপার স্প্রেডার স্ট্রেন রয়েছে। সেই সময় এনআইবিজি তেই রাখা হয়েছিল ওই যুবককে এখন তাকেও বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

তারপরের জানা যায়, একজন কলকাতা এবং আরেকজন হুগলির বাসিন্দার শরীরের মধ্যে করোনার নতুন স্ট্রেন থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। ওই দুজনের নমুনার জিনোম সিকোয়েন্স বের করে পরীক্ষা করে রিপোর্ট পজেটিভ আসে। বেলেঘাটা আইডি তে ভর্তিরত আরো এক জনের শরীরে বি.১.১.৭ মিউট্যান্ট স্ট্রেন তথা করোনা নতুন স্ট্রেন খুঁজে পাওয়া গেছে। তারা প্রত্যেকেই এখন বেলেঘাটা আইডি তে চিকিৎসাধীন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।