চাঁদের দিন- রাতের হিসেব করেই কি ফের হবে চন্দ্রযাত্রা

ফোর্থ পিলার ;

চন্দ্রযান অভিযান থমকে যাওয়ার পরে প্রশ্ন উঠেছে তাহলে কবে ফের অভিযান শুরু হবে। এই বিষয়ে ইসরো কোনও মন্তব্য করছে না। তবে অভিযান নিয়ে দুই ধরনের কথা কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে। একটি সূত্র জানাচ্ছে, যুদ্ধকালীন প্রক্রিয়ায় কাজ চললেও ১০ দিনের আগে কাজ শেষ হবে না।

জ্বালানি রকেট থেকে চুয়ে পড়েছিল। ফলে রকেট থেকে সম্পূর্ণ জ্বালানি বার করে নেওয়া হবে। তারপর শুরু হবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও বিভিন্ন বিষয়ে বদল। সবকিছু হয়ে গেলে সাত তাড়াতাড়ি ফের উৎক্ষেপণ বুদ্ধিমানের হবে না বলে আরেকপক্ষ মনে করছেন। তার অন্যতম কারণ, চাঁদের দিন- রাত্রি।

পৃথিবীর ২৮ দিনে চাঁদের একদিন হয়। অর্থাৎ ১৪ দিন চাঁদের আলো থাকে। আর ১৪ দিন চাঁদের অন্ধকার, নিকষ কালো রাত। এই অবস্থায় সৌরশক্তিতে চলা গাড়ি অন্ধকারের মধ্যে চালানো কঠিন হবে। কারণ, রোবট গাড়িটি সৌরশক্তিতে চলবে। সেই হিসেবে ১৫ জুলাইকে বাছাই করা হয়েছিল। যেখানে ৫৫ দিন পর চাঁদের মাটি ছুঁত চন্দ্রযান। আর সেই সময়ে টানা ১৪ দিন চাঁদে আলো থাকত। দিনগত অবস্থান ঠিক করেই ফের বাহুবলীকে পাঠানো হোক, এমন মত প্রকাশ করছেন বিজ্ঞানীদের একাংশ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।