চোর সন্দেহে দম্পতিকে মারে মৃত স্ত্রী, গ্রামে উত্তেজনা, পুলিশ পিকেট

ফোর্থ পিলার

চোর সন্দেহে স্বামী-স্ত্রীকে বেধড়ক মারধর করা হয়েছিল। পরে দু দুজনকে পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। চিকিৎসকরা জানান, স্ত্রী মারা গিয়েছে। ঘটনার পরেই তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় গ্রামে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ চার জনকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড় থানার চিনেপুকুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। ধৃতদের আজ আদালতে তোলা হয়। তাদের নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মৃত মহিলার নাম সুফিয়া বিবি (৪১)। ওই গ্রামেই তারা বাস করে। জানা গিয়েছে, মইবুল মোল্লার বাড়িতে দু’লক্ষ টাকা চুরি হয়। আলি হোসেন মোল্লা এই চুরি করেছে বলে প্রাথমিকভাবে তাদের অনুমান হয়। তাকে ধরে এনে বেধড়ক মারধর শুরু করে মহিবুল মোল্লার বাড়ির লোকজন। এরপর সন্দেহ হয় তার স্ত্রী সুফিয়া বিবিও এই চুরির সঙ্গে যুক্ত। তাকেও ধরে আনা হয়। দু’জনকে বেধড়ক মারধর করা হয় চোর সন্দেহে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে। দুজনকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

তাদের পরিস্থিতি গুরুতর ছিল। শুক্রবারেই তাদের কলকাতার আরজিকর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। হাসপাতালে পৌঁছলে চিকিৎসকরা জানান, সুফিয়া বিবি মারা গিয়েছে। আলি হোসেন মোল্লা আরজিকর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মৃত্যুর খবর গ্রামে পৌঁছায়। এরপরে স্থানীয় বাসিন্দারা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। মারমুখী হয়ে ওঠে তারা। পরিস্থিতি যথেষ্ট জটিল বুঝতে পারে পুলিশ। গ্রামে পুলিশ বসানো হয়েছে। শনিবারও যথেষ্ট উত্তেজনা রয়েছে গ্রামে।

মিথ্যা অভিযোগে দুজনকে এভাবে মারধর করা হল৷ সুফিয়া বিবি মারা গেলেন। এ কথা জানাচ্ছে গ্রামের বাসিন্দারা। পুলিশ ওই পরিবারের চার জনকে গ্রেফতার করে গতকালই। আজ তাদের আদালতে তোলা হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।