ছয় ফুট দূরত্ব থাকবে, তর্পণে ঘাটে নজরদারি

ফোর্থ পিলার

আগামী কাল মহালায়া গঙ্গার ঘাটে তর্পণ অনুষ্ঠান হবে। কলকাতা পৌরসভার পক্ষ থেকে এবারে এক বিশেষ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব যাতে বজায় থাকে সেই ব্যাপারে নজর দেওয়া হচ্ছে। আগামী কাল সকাল থেকেই গঙ্গার ঘাটগুলিতে বহু মানুষ ভিড় করবেন। সামাজিক দূরত্ব সেক্ষেত্রে নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে।

কলকাতা পুরসভা কলকাতা পুলিশের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা করেছে। কলকাতা পুরসভার মধ্যে গঙ্গায় নটি ঘাট রয়েছে। বাগবাজার, বাবুঘাট, নিমতলা ঘাট, আহিরীটোলা ঘাটে তর্পনের কাজ চলে। বহু মানুষ উপস্থিত হন। পূর্বপুরুষকে সম্মান জানানোর জন্য ব্রাহ্মণ পুরোহিতরাও উপস্থিত থাকেন পুজোর জন্য। এবার করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে তর্পণ অনুষ্ঠান হবে। কিন্তু সেক্ষেত্রে নিয়মকানুন থাকার বন্দোবস্ত রয়েছে।

কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে নজরদারি থাকবে। বেশি সংখ্যায় পুলিশ মোতায়েন থাকবে ঘাটগুলিতে। বহু মানুষ যাতে একসঙ্গে ঘাটে উপস্থিত হতে না পারেন সেদিকে ব্যবস্থা করা হবে। ঘাটের সিঁড়িগুলিতে তর্পণের কাজ হবে। একসঙ্গে যাতে বহু মানুষ গঙ্গায় নামতে না পারেন সেদিকে নজরদারি থাকছে। প্রত্যেকের মধ্যে দূরত্ব থাকবে ৬ ফুট। এছাড়াও প্রত্যেককে মাস্ক পরতে হবে। ব্যবহার করতে হবে স্যানিটাইজার। একসঙ্গে বহু মানুষ ভিড় করতে পারবেন না। পুলিশ এই ব্যাপারে কড়া ভূমিকা নেবে।

শুধু তাই নয়, এবারে জলপুলিশের পক্ষ থেকে গঙ্গায় নজরদারি থাকছে। যাতে কোনওরকম বিপদ না হয়, সেদিকে কড়া ভাবনা রয়েছে। মাতৃপক্ষের শুরুতে আরও বেশি এই পরিস্থিতির বদল চাইছেন সাধারণ মানুষ। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য প্রত্যেকেই এই মুহূর্তে হাঁসফাঁস করছেন। রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে।

তর্পণের মাধ্যমে যাতে কোনওভাবে সামাজিক দূরত্ব বিধি লঙ্ঘণ করা না হয় সেদিকে নজর রাখা হবে। কলকাতা পুরসভা ঘাটগুলিতে তাদের নজরদারি রাখবে বলে খবর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।