জামিন হল না আজও, ২০ অক্টোবর পর্যন্ত জেলেই থাকবেন রিয়া

ফোর্থ পিলার

ফের বাড়ল রিয়া চক্রবর্তীর বিচার বিভাগীয় হেফাজতের মেয়াদ। আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত রিয়া চক্রবর্তীকে জেলে কাটাতে হবে। আজ মঙ্গলবার রিয়া চক্রবর্তীর শুনানির দিন ছিল। আদালত আরও ১৪ দিন তাকে বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে। তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকেও আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত জেল হেফাজতে রাখা হবে। রাজনৈতিক মহলে বিরোধীরা রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের জন্য সওয়াল করছেন। কিন্তু আদালত সে কথায় কান দিল না। এদিনের শুনানিতে তা স্পষ্ট হল।

মঙ্গলবার এই রায় দিয়েছে মুম্বইয়ের নারকোটিক্স ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্সেস অ্যাক্ট কোর্ট তথা এনডিপিএস আদালত। আপাতত মুম্বইয়ের বাইকুল্লা জেলে রয়েছেন রিয়া। আগামী ২০ তারিখ পর্যন্ত সেখানেই থাকতে হবে তাঁকে। গত ৭ সেপ্টেম্বর রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করে এনসিবি। মাদক যোগ রয়েছে। এ কথা জানানো হয়। রিয়ার ভাই সৌভিককেও গ্রেফতার করা হয়েছিল।

৭ সেপ্টেম্বর রাতে শুনানি হয় রিয়ার। বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারক। এরপর তিনবার জামিনের আবেদন করা হয়েছে রিয়ার পক্ষ থেকে। প্রতিবারই আবেদন খারিজ হয়। এনসিপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, রিয়া প্রভাবশালী। বাইরে বেরোলে সূত্র প্রমাণ নষ্ট করার চেষ্টা করতে পারেন তিনি। এখন অবধি তিনবার রিয়ার বিচার বিভাগীয় হেফাজতের সময় বাড়ানো হয়েছে।

ইডি সুশান্ত সিং রাজপুতের আর্থিক লেনদেনের অস্পষ্টতার বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছিল। সেক্ষেত্রে রিয়া চক্রবর্তীর মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত হয়। পুরনো চ্যাট উদ্ধার হয়। হোয়াটসঅ্যাপে দেখা যায় মাদক সংযোগের কথাবার্তা রয়েছে। সে কথা জানাজানি হওয়ার পরেই নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো তদন্ত শুরু করে। স্বতঃপ্রণোদিতভাবে মামলা দায়ের করেছিল। রিয়া ও সৌভিককে জেরা করা হয়। তথ্যে অসঙ্গতি ছিল প্রথম দিকে। পরে রিয়া তার সঙ্গে মাদক সংযোগের কথা মেনে নেন।

সুশান্ত সিং রাজপুত মাদক নিতেন। সুশান্তের এই ক্ষেত্রে সঙ্গী দরকার থাকত। রিয়া সহ অন্যান্যরা সে কারণেই এর সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছেন। তবে রিয়া নিজে কখনও মাদক নেননি। এ কথা জানানো হয়। শুধু তাই নয়, বলিউডের একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নাম তিনি প্রকাশ করেন। বলিউড সুপারস্টার দীপিকা পাডুকোন, নায়িকা সারা আলি খান, শ্রদ্ধা কাপুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। মাদক কাণ্ডে রিয়া সৌভিক সহ ২০ জন এই ঘটনায় জেল হেফাজতে রয়েছেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।