জুলাই মাসে ভারতে করোনা নিয়ন্ত্রণে আসার সম্ভাবনা

ফোর্থ পিলার

জুলাই মাসে ভারতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। লাগেম আসবে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের একাংশ এই কথা বলছে। তবে স্থির কোনও বক্তব্য কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়নি এখনও। মে মাস সম্পূর্ণরূপে ভারতবর্ষে করোনায় বিপর্যস্ত। এই অবস্থা জারি থাকবে। মৃত্যু ও আক্রান্তের নিরিখে সর্বাধিক অবস্থানে সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছে যাবে ভারতবর্ষ। সেখান থেকেই সংক্রমণ নামতে শুরু করবে। এই কথা বলা হচ্ছে।

ভারতবর্ষে দৈনিক চার লক্ষ করোনার সংক্রমণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে৷ গত দুই সপ্তাহ আগে আক্রান্তের তুলনায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল অত্যন্ত কম। এখন সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। আশার আলো সেখান থেকে আরও বেশি অনুভব করছেন চিকিৎসকরা। বিজ্ঞানীদের দাবি, করোনার সংক্রমণ ভারতে সুপার স্প্রেডার হয়েছে। তাই আমেরিকার থেকেও ৩০ গুণ সংক্রমণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে এই মুহূর্তে৷ ১ মে থেকে সংক্রমণ আরও বেশি মাত্রায় গিয়েছে।

মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে সংক্রমণ সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছবে। একথাও আগে জানানো হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, মার্চ মাস থেকে ভারতের সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হয়। সেই সংক্রমণ গত দুমাস ধরে এক বিশাল হিমশৈলতে পরিণত হয়েছে। ভারতবর্ষ ফের ক্ষেত্র বিশেষে লকডাউনের পথে হেঁটেছে। তাই সংক্রমণ কমবে। আগামী জুন মাস থেকে সংক্রমণ নামতে শুরু করবে। জুলাইয়ে নিয়ন্ত্রণে আসবে করোনা পরিস্থিতি। এই বিষয় নিয়ে কোনও স্থির মন্তব্য স্বাস্থ্যমন্ত্রক করেনি। তবে বিজ্ঞানীদের একাংশ এই বক্তব্যের সঙ্গে অনেকটাই একমত। কিন্তু ভারতীয় স্ট্রেন অত্যন্ত শক্তিশালী। কাজেই সংক্রমণ কত দ্রুত কমানো যাবে? তাই নিয়ে প্রশ্ন থাকছে। বিজ্ঞানীদের একটা অংশ জানাচ্ছেন, যত দ্রুত সংক্রমণ বেড়েছে, ততটাই দ্রুত নামবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।