জেলায় তাপমাত্রা নামছে, পানাগড়ে ৯ ডিগ্রি, আজ আরও নামবে পারদ

ফোর্থ পিলার

তাপমাত্রার পারদ আরও নামছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আরও কিছুটা নামবে বলে আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে। এমনিতেই হাওয়া অফিস জানিয়েছিল ৪৮ ঘন্টা ঠাণ্ডার দাপট বাড়বে। সে মতোই পরিস্থিতি বেসামাল হচ্ছে। কলকাতা ও শহরতলিতে তাপমাত্রার পারদ ১৫.৩ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড পর্যন্ত নেমেছে। জেলায় সেই তাপমাত্রা নেমেছে আরও কয়েক ডিগ্রি।

গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। আজ সকালে তাপমাত্রার পারদ নেমেছে ১৫.৩ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। বাতাসে শুকনো ঠাণ্ডা আবহাওয়া রয়েছে। তাই আগামী শুক্রবার পর্যন্ত পরিস্থিতি যথেষ্ট শীতকাতুরে থাকবে। একথা বলাই যায়। বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। তার জেরে শুক্রবারের পর থেকে তাপমাত্রার বদল ঘটবে। শুধু তাই নয়, ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে তামিলনাড়ু উপকূল এলাকাজুড়ে।

পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোতে তাপমাত্রার পারদ ক্রমশ নামছে। আজও সেই তাপমাত্রার পতন চলবে। পশ্চিমের জেলাগুলিতে এই তাপমাত্রা অনেক বেশি কমছে। শ্রীনিকেতন, আসানসোল,-দুর্গাপুর প্রভৃতি জায়গায় কনকনে ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে। পানাগড়ে গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ ডিগ্রির নিচে নেমে গিয়েছে। শ্রীনিকেতনে ১১ ডিগ্রির কাছাকাছি সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। বাঁকুড়া ও পুরুলিয়ায় তাপমাত্রা নেমেছে ১২.৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড ও ১০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। পরিস্থিতি এখন আগামী ৪৮ ঘন্টা এমনভাবেই কাটবে বলে জানানো হচ্ছে।

কলকাতায় গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৭.৯ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি কম। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, প্রতিদিন ধাপে ধাপে তাপমাত্রার পতন ঘটবে। সোমবার থেকে চারদিন দুই ডিগ্রি করে তাপমাত্রার পতন দেখা যাবে। কিন্তু বাস্তবে দেখা গিয়েছে এক ধাক্কায় ৪ ডিগ্রি পতন হয়েছে তাপমাত্রার পারদ। আগামী দুদিন তাপমাত্রা আরও কিছুটা নামতে পারে। একথা মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।