টলিউডের ‘নটী’রা কি করে প্রার্থী হলেন? কারা দিল টিকিট? আক্রমণ তথাগতর

ফোর্থ পিলার

বিজেপির পরাজয়ের কাঁটা এখন বঙ্গ রাজনীতিতে অস্বস্তিকর অবস্থায়। সেই কাঁটা ঘায়ে নুনের ছিঁটে দিলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়। টলিউড অভিনেত্রীদের কেন ভোটের টিকিট দেওয়া হয়েছে? কারা তাদের প্রার্থী করলেন? তাই নিয়ে রীতিমতো অসন্তুষ্ট তিনি। টুইটারে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন রাজ্যের বিজেপি নেতাদের দিকে।

এবারের দোল উৎসবের সময় কামারহাটি তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল পায়েল, শ্রাবন্তী, পার্নো এই বিজেপি প্রার্থীদের। নৌকাবিহারে গিয়ে মদন মিত্রের সঙ্গে আবির খেলেছেন তারা। শুধু তাই নয়, গানের সঙ্গে নাচতেও দেখতে পাওয়া গিয়েছিল তাদের। সেলফি ভাইরাল হয়েছিল নায়িকাদের। কার্যত তথাগত রায় সে সময়ে তুলোধোনা করেছিলেন। “নগরীর নটি চলে অভিসারে যৌবন মদে মত্তা” কার্যত এই উদ্ধৃত করে আক্রমণ করেছিলেন।

রাজ্যের প্রাক্তন বিজেপি নেতা এবার তাদের প্রার্থী হওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। টলিউড অভিনেত্রীরা প্রার্থী হয়েছেন। এবারে প্রত্যেকেই বিশাল ভোটের ব্যবধানে তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে পরাজিত হয়েছেন। যারা কোনওকালেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নন। কোনও কর্মসূচিতে দেখতে পাওয়া যায়নি কেন? তারা প্রার্থী হলেন কিভাবে? এই প্রশ্ন তথাগত রায় করেছেন। তথাগত লিখেছে, “পায়েল শ্রাবন্তী পার্নো ইত্যাদি ‘নগরীর নটিরা’ নির্বাচনের টাকা নিয়ে কেলি করে বেরিয়েছেন আর মদন মিত্র সঙ্গে নৌকাবিলাসে গিয়ে সেলফি তুলেছেন (এবং হেরে ভূত হয়েছেন) তাদেরকে টিকিট দিয়েছিল কে? কেনই বা দিয়েছিল? দিলীপ – কৈলাস- শিবপ্রকাশ- অরবিন্দ প্রভুরা একটু আলোকপাত করবেন কি?”

বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের উপরেও প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন তিনি। প্রার্থী বাছাই সঠিক হয়নি। এই নিয়ে বিজেপির পুরনোদের মধ্যে যথেষ্ট ক্ষোভ রয়েছে। তৃণমূল থেকে আসা ব্যক্তিরা বিপুল ভোটে হেরেছে এবারের নির্বাচনে। তার উপর তথাগত রায় এই আক্রমণ করে বসলেন। মদন মিত্রের সঙ্গে দোল খেলতে গিয়েছিলেন অভিনেত্রীরা। সে সময় তারা প্রার্থী হয়ে গিয়েছেন বিজেপির।

সেই ছবি দেখার পরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন তথাগত রায়। টুইটারে লিখেছিলেন, ‘নগরীর নটী চলে অভিসারে যৌবনমদে মত্তা। এই নটীদের এখনও বোধ হয়নি রাজনীতিটা অভিসার নয়। শেষপর্যন্ত বাসবদত্তার অবস্থা না হলেই ভালো।” তথাগতবাবুর এই টুইট ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে রাজ্য বিজেপির অন্দরে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।