ডেবরায় ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ, উত্তেজনা এলাকায়

ফোর্থ পিলার

পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরায় একটি আদিবাসী মহিলার দেহ উদ্ধারের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে। মহিলার পরিবারের অভিযোগ তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

পরিবার সূত্রে খবর, শনিবার সন্ধ্যাবেলা ওই মহিলার স্বামী কাজে যান। রাত্রিবেলায় বাড়ি ফিরে এসে স্ত্রীকে তিনি দেখতে পাননি। বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর পাশাপাশি বাড়িতে খোঁজখবর নেন। কিন্তু সেখানেও তিনি কোনও খোঁজ পাননি। রবিবার সকালে ডেবরা থানার খোলাবাজার এলাকার একটি ধানের জমি থেকে ৩৫ বছরের এক মহিলার দেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। খবর যায় পরিবারের কাছে। মৃতার স্বামী এবং পরিবারের লোকেরা সেখানে আসেন। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। পুলিশ এসে দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠান।

মৃতার স্বামীর অভিযোগ, বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে তাঁর স্ত্রীকে। দোষীর শাস্তি তারা চান। সেজন্য বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা। পরে পথ অবরোধ ও করেন ‌। বেশ কিছু সময় অবরোধ চলার পর পুলিশ এসে তাদের বুঝিয়ে পথ অবরোধ তোলেন। পুলিশ জানিয়েছেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে এলেই জানা যাবে শুধুই খুন? নাকি ধর্ষণ করে খুন? তবে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এই ঘটনাকে ঘিরে রাজনৈতিক উত্তাপ ছড়িয়েছে। মৃতা তাদের দলের বলে বিজেপি দাবি করেছে। রাজ্যে মহিলাদের উপর অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে চলেছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটছে। ঘটনায় দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি চাই বলে দাবি উঠেছে বিজেপির তরফে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।