তাকে দুবার করে ভোট দিতে বললেন ট্রাম্প

ফোর্থ পিলার

তাদের সমর্থকদের দুবার করে ভোট দিতে আহ্বান করলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এক সভায় গিয়ে তিনি এই নজিরবিহীন বক্তব্য রেখেছেন। হিসেব মতো গণতান্ত্রিক কাঠামোতে একজন নাগরিক কখনও দুবার ভোট দিতে পারেন না। অনৈতিক এই কাজের কথা প্রেসিডেন্ট নিজে মুখে বলছেন। নিন্দার ঝড় উঠেছে আমেরিকার ওয়াকিবহাল মহলে। তবে এই বিতর্কের জন্য খুব একটা ভাবিত নন, ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি পরিষ্কার জানিয়েছেন, আগামী নির্বাচনে তাকে দুবার করে ভোট দিতে।

করোনা ভাইরাস আবহে এবার ডাকযোগে ভোট দিতে পারবেন নাগরিকরা। বুথের ব্যবস্থাও রয়েছে। যারা চাইবে তারা বুথে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন। সাধারণ মানুষ এবার ডাকযোগে ভোট দেবেন। একথা কার্যত পরিষ্কার। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বরাবর এই ডাকযোগে ভোটের বিরোধিতা করে আসছেন। রিপাবলিকানরা এর সুবিধা নেবে। ভোটে জালিয়াতি হবে। এই কথা মার্কিন প্রেসিডেন্ট একাধিকবার অভিযোগের আকারে তুলেছেন। সেই কথা মানতে নারাজ রাজনৈতিক মহল।

শেষপর্যন্ত ট্রাম্পের এই বিতর্ক আরও উসকে দিল ভোটের উত্তাপ। ডাকযোগে ভোট প্রক্রিয়া হলে প্রেসিডেন্ট তার জন্য বক্তব্য পেশ করলেন। তাদের সমর্থকদের দুবার ভোট দেওয়ার কথা বললেন। বুথে গিয়ে যারা ভোট দেবেন তারা ডাকযোগে ভোট দেবেন প্রেসিডেন্টকে। এমন অগণতান্ত্রিক বক্তব্য ট্রাম্প কি করে বলতে পারে? সেই কথা উঠেছে। এদিকে আগামী নভেম্বর মাসে আমেরিকায় ভোট। বিরোধীরা ক্রমে উত্তাপ ছড়াচ্ছে ভোটের প্রচার।

একের পর এক নির্বাচনী জনসভা করছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। এই অবস্থায় বিতর্ক ক্রমশ তৈরি হচ্ছে ভোটের আবহে। গতকাল নর্থ ক্যারোলিনার উইলমিংটন শহরে এই মন্তব্য করেছেন তিনি। এই শহরকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ের ঐতিহাসিক শহর হিসেবে ঘোষণা করার কথা ঠিক হয়েছিল। আনুষ্ঠানিক ভাবে ‘আমেরিকান ওয়ার্ল্ড ওয়ার টু হেরিটেজ সিটি’ ঘোষণা করা হয়। বক্তৃতা রাখতে শুরু করেন ট্রাম্প। দু-চার কথার পরেই ট্রাম্প ভোটের প্রসঙ্গ তোলেন। এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।