তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ, কাল থেকে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে দক্ষিণবঙ্গে

ফোর্থ পিলার

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ ঘনীভূত হয়েছে। আগামী কাল বৃহস্পতিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছ। একথা জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আগামী তিনদিন দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি থাকবে। বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপের জেরে অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, ওড়িশার উপর যথেষ্ট প্রভাব পড়বে।

হাওয়া অফিস আগেই এই বিষয়ে সতর্ক করেছিল। রবিবার থেকেই ঘূর্ণাবর্ত তার শক্তি বাড়াতে থাকে। গতকাল মঙ্গলবার থেকে সেটি নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। আজ বুধবার নিম্নচাপটি তার নির্দিষ্ট গতিতে এগোতে শুরু করেছে। উত্তর-পশ্চিমে যাবে নিম্নচাপটি। তারপর সেটি উত্তর, উত্তর- পূর্ব দিকে এগোবে। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি থাকবে। কলকাতাতেও কম বেশি ভারী বৃষ্টি চলবে। এ কথা জানানো হয়েছে।

উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে যাওয়ার অর্থ পাহাড়ের দিকে বৃষ্টির প্রভাব থাকতে পারে। তবে অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, ওড়িশার উপর দিয়ে নিম্নচাপ বইবে। তাই এই রাজ্যগুলিতে বৃষ্টির পরিমাণ থাকবে অনেক বেশি। বুধবার থেকেই আবহাওয়ার বদল হতে শুরু করেছে। আকাশে পেঁজা তুলোর মতো শরতের মেঘ খুব একটা দেখতে পাওয়া যায়নি। বিক্ষিপ্তভাবে ঘন কালো মেঘ ভেসে বেড়াতে শুরু করেছে। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে বলে খবর। আগামী কাল থেকে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গাতে মাঝারি ও ভারী বৃষ্টি দেখা যাবে।

আগেই জানানো হয়েছিল, বৃষ্টির প্রভাবে এবারের পুজো মাটি হওয়ার আশঙ্কা থাকছে। পরিস্থিতি সেদিকেই এগোতে পারে। তার থেকেও বড় কথা কলকাতা ও শহরতলিতে বৃষ্টির প্রভাব যথেষ্ট পড়বে। আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের উপর থাকবে। গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন ২৬.৯ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতার সর্বোচ্চ পরিমাণ ৮৯ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৪৭ শতাংশ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।