দক্ষিণবঙ্গে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা, থাকবে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি

ফোর্থ পিলার

বঙ্গোপসাগরের আরও একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সেই কারণে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর এই বক্তব্য জানিয়েছে। উত্তরবঙ্গের বৃষ্টির পরিমাণ আগামী তিন দিন বাড়বে। তবে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা খুব একটা জারি থাকছে না। কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, দুই ২৪ পরগনায় বৃষ্টি থাকবে। তবে এক্ষেত্রে মাঝারি বৃষ্টি হবে জেলাগুলিতে।

কলকাতা সহ আশেপাশের জেলাগুলিতে সকাল থেকেই কয়েক ফসলা বৃষ্টি হয়ে গিয়েছে। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ অত্যন্ত বেশি। আগামী ২৪ ঘন্টা বৃষ্টি চলবে বিভিন্ন এলাকায়। সকাল থেকেই ঘন কালো মেঘের আনাগোনা থাকছে আকাশ জুড়ে। তবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি থাকবে। একথা জানানো হচ্ছে। মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তরবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। পাশাপাশি জলীয় বাষ্পপূর্ণ বায়ু বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর পরিমাণে ঢুকছে। উত্তরবঙ্গে এর কারণে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা জারি হয়েছে আগামী তিন দিন।

দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টি চলবে। মালদা ও উত্তর দিনাজপুর জেলাতেও বৃষ্টি হবে। দক্ষিণবঙ্গের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে বৃষ্টি থাকবে। তবে দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রার হেরফের খুব একটা হবে না। জলীয় বাষ্পপূর্ণ বায়ু থাকছে। বাতাসে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি যথেষ্ট বেড়েছে। পাশাপাশি ঘাম হচ্ছে। বৃষ্টি হলে কিছুটা অস্বস্তি কমতে পারে। তবে এই পরিস্থিতি ক্ষণস্থায়ী হবে।

উত্তরবঙ্গের দীর্ঘ সময় ধরেই ভারী বৃষ্টি হয়ে চলেছে। মৌসুমী অক্ষরেখা অসম, মেঘালয় পর্যন্ত বিস্তৃত। হিমালয়ের পাদদেশে গিয়ে বর্ষার মেঘ ধাক্কা খেয়েছে বারেবার। সে কারণে উত্তরবঙ্গে চলতি মরসুমে বৃষ্টির পরিমাণ অত্যন্ত বেশি। আগামী দিনে এই বৃষ্টি জারি থাকবে। শুধু তাই নয়, বিদায় নেওয়ার আগে পর্যন্ত এবার উত্তরবঙ্গে ভালো বৃষ্টি থাকবে। এই কথা মনে করা হচ্ছে। আজ দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রয়েছে ৩৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের কাছাকাছি।

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ৯০ শতাংশের বেশি। সর্বনিম্ন ৫৫ শতাংশের কাছাকাছি। এর ফলে অস্বস্তি ক্রমে বাড়ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।