দীর্ঘ ১১ বছর পর আকাশপথে কলকাতা – লন্ডন সম্পর্ক

ফোর্থ পিলার

দীর্ঘ ১১ বছর পর ফের আকাশপথে লন্ডনের সঙ্গে কলকাতার সরাসরি সম্পর্ক তৈরি হচ্ছে। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতা – লন্ডন বিমান পরিষেবা শুরু হবে। আপাতত সপ্তাহে দুদিন এয়ার ইন্ডিয়া এই বিমান চালাবে। আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত ‘বন্দে ভারত প্রকল্পতে এই বিমান চলাচল করবে।

কলকাতা – লন্ডন সরাসরি বিমান চলাচলের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি ছিল। সেই কথার উপর জোর দিয়ে বন্দে ভারত মিশনে এই যোগাযোগ সম্পূর্ণ করা হয়। আপাতত আন্তর্জাতিক সাধারণ নিয়ম যাত্রী পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। আকাশপথ সম্পূর্ণ খুলে দিলে এই পরিষেবা সাধারণ যাত্রীদের জন্য তৈরি হতে পারে। এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১১ সাল থেকেই কলকাতা – লন্ডন সরাসরি বিমান চলাচলের জন্য দাবি তুলেছিলেন। শেষ পর্যন্ত সেই দাবি মানা হল।

বিদেশ থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে বিমান নামার ক্ষেত্রে নবান্নের আপত্তি রয়েছে। রাজ্য সরকার চাইছে না বিদেশের যাত্রীরা এখন কলকাতায় নামুক। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কলকাতা – লন্ডন বিমান পরিসেবার কথা বলা হয়েছিল। তিনি এককথায় এই প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন। তার সবুজসংকেত পাবার পর আর কোনও সমস্যা দেখা দেয়নি। তিনি জানিয়েছিলেন, সপ্তাহে তিনদিন এই পরিষেবা চলতে পারে। ওয়াকিবহাল মহল বলছে এই উড়ান আসলে রাজ্যের সাফল্য। মুখ্যমন্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে এই বিষয়ে আবেদন করেছিলেন। সেই আবেদনকে মান্যতা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

২০০৯ সালের মার্চ মাসে কলকাতা – লন্ডন সরাসরি বিমান পরিষেবা তুলে নেয় ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ। এয়ার ইন্ডিয়া ছাড়া ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিমান কলকাতায় নামত। পরবর্তীকালে শুধু লন্ডন নয় ইউরোপের উড়ান কার্যত বন্ধ হয়ে যায়। কলকাতা থেকে এখন ইউরোপ যেতে হলে কলকাতা থেকে দুবাই যেতে হয়। সেখান থেকে বিমান বদল করতে হয় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে যাওয়ার জন্য। আশা করা হচ্ছে এবার সেই সমস্যা মিটবে। আগামী দিনে শুধু কলকাতা – লন্ডন নয়, ইউরোপের অন্যান্য শহরের সঙ্গে কলকাতার আকাশপথে সম্পর্ক তৈরি হবে।

এখন সপ্তাহের বুধ ও শনিবার লন্ডন থেকে সরাসরি বিমান এসে কলকাতায় নামবে। বৃহস্পতি ও রবিবার কলকাতা থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান কলকাতা – লন্ডনের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেবে। ড্রিমলাইনার বোয়িং ৭৮৭ বিমানটি চলাচল করবে এই পরিষেবায়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।