দেশের মানুষকে বিনামূল্যে করোনার টিকা দেওয়া হবে

ফোর্থ পিলার

দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস টিকার ড্রাই রান শুরু হয়েছে। দিল্লিতে সেই কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। দেশের মানুষকে করোনা ভাইরাসের টিকা বিনামূল্যে দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে একথা ঘোষণা করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত রীতিমতো ঘটনা বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

ভোট প্রচারে এসে বিহারে একাধিকবার বিজেপি নেতারা এ কথা জানিয়েছিলেন। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এই বিষয় নিয়ে কোনও বক্তব্য রাখা হয়নি। মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি বলেছিলেন কেন্দ্রীয় সরকার বিনামূল্যে টিকা দেবে সাধারণ মানুষকে। এবার সেই সিদ্ধান্ত লাঘু হতে চলেছে। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এখনও করা হয়নি। সম্পূর্ণ চিত্র জানুয়ারি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে পরিষ্কার হয়ে যাবে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। কিভাবে টিকা কারা পাবে? সেই নিয়ে কথাবার্তা চলছে।

প্রথম পর্যায়ে ৩০ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে দেশে। প্রথম ধাপে এক কোটি মানুষ পাবেন। তাদের মধ্যে রয়েছে প্রত্যেকে স্বাস্থ্যকর্মী। দ্বিতীয় ধাপে দুই কোটি টিকা দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে পুরকর্মী, পুলিশ ও সেনা থাকছে। তৃতীয় ধাপে ২৬ কোটি টিকা দেওয়া হবে। মূলত এই ক্ষেত্রে বয়স্ক ব্যক্তিরা প্রাধান্য পাচ্ছেন। যাদের বয়স ৫০ – এর বেশি, কোমর্বিডিটি উপসর্গ রয়েছে তাদের টিকা দেওয়া হবে। চতুর্থ ধাপে দেওয়া হবে এককোটি মানুষকে। যাদের বয়স পঞ্চাশের কম কিন্তু কিডনি, হার্টের সমস্যায় দীর্ঘদিন ধরে ভুগছেন। তাদের দেওয়া হবে এই টিকা। দেশজুড়ে আজ শনিবার থেকে ড্রাই রান শুরু হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।