পারদ নামল আরও, শনি ও রবিবার শীতের দাপট বাড়বে

ফোর্থ পিলার

শীতের ব্যাটিং এবার বোঝা যাচ্ছে না। পৌষ মাস ছিল ঠান্ডা- গরমের টানাটানি ম্যাচ। মাঘ মাসে তাপমাত্রা রীতিমতো কমতির দিকে। গত এক সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রার পতন দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গে শীতের স্থায়িত্ব কত দিন? সে সম্পর্কে সম্যক কোনও ধারণা পাওয়া যাচ্ছে না।

আজ শুক্রবার থেকে তাপমাত্রার পতন আরও হবে। আগামী শনি ও রবিবার পর্যন্ত শীত থাকবে। শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গিয়েছে। আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। গত দুদিন আগে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পাঁচ ডিগ্রি বেড়ে গিয়েছিল। আবার সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নামতে শুরু করেছে।

আগামী কাল শনিবার ও রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আরও নামবে। এমনই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। রবিবার থেকে নিম্ন তাপমাত্রা বাড়তে থাকবে তবে এখনই চলে যাবে। এই কথা মনে করা হচ্ছে না। জলীয় বাষ্পের চাদর সরে গেলেই উত্তর ভারত থেকে কনকনে ঠাণ্ডা বাতাস বইতে শুরু করেছে। তার ফলে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে শীতের আমেজ আবার ফিরে আসছে।

পৌষ মাসে খুব একটা শীতের কামড় দেখতে পাওয়া যায়নি। তাপমাত্রা ছিল বেশি। মাঘ মাস থেকে তাপমাত্রার পারদ ফের নামতে থাকে। কাজেই পরিস্থিতি অনুকূল হয় শীতের জন্য। দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলিতে যথেষ্ট ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। গত দুদিন ধরে ফের শুরু হয়েছে ঠান্ডা হাওয়ার দাপট। কলকাতাতেও হিম শীতল হাওয়া বইছে গত দু’দিন ধরে। এখন আর খুব একটা বেশি জলীয় বাষ্প দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না তাই উত্তর ভারত থেকে ঠান্ডা হাওয়া আসার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই।

সকালে কুয়াশার দাপট চলে গিয়েছে। ভোররাত থেকে ভালো শীত অনুভব হচ্ছে। রোদের তেজও রয়েছে ভালো৷ আজ, আগামী কাল ও পরশু ভালো শীতের আমেজ পাবে দক্ষিণবঙ্গ। উত্তরবঙ্গতেও তাপমাত্রাত পতন দেখা যাচ্ছে। আগামী সপ্তাহে তাপমাত্রার পারদ বাড়তে পারে। একথা মনে করছেন আলিপুর আবহাওয়া দফতর। মাঘ মাসে শীত থাকবে যথেষ্ট বেশি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।