প্রথমদিনে পাঁচ কোটি, পিছিয়ে দিপীকার ‘ছপক’

ফোর্থ পিলার

অপেক্ষার অবসান তো ঘটল। তবে প্রশ্ন সাফল্যে। ১০ জানুয়ারি শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে দিপীকা পাডুকোনের ‘ছপক’। কিন্তু প্রথম দিনের ব্যবসা খুব একটা ভালো ইঙ্গিত দিল না৷ পাঁচকোটি টাকার মতো প্রথম দিনে ব্যবসা করেছে। ক্রিটিকসদের রেটিং খুব একটা ভালো ইঙ্গিত দিচ্ছে না বলেই মনে করা হচ্ছে। একমাত্র হিন্দি ভাষাতেই এই সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে।

গোটা ভারতবর্ষে মাত্র ১৭০০ টি হলে এই ছবি জায়গা পেয়েছে। ভারত ও বিদেশ মিলিয়ে মোট ২১৬০ টি হলে মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমা। এটিও ব্যবসা কম হওয়ার একটা বড় কারণ। ২০১৫ সালে ১৫ বছর বয়সী অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়ালের লড়াই নিয়ে এই সিনেমা। ছবিতে মালতীর ভূমিকায় দিপীকা পাডুকোন অভিনয় করছেন। মেকআপের জন্য একটা শ্রেণির কাছে উৎসাহ ছিল তুঙ্গে।

কিন্তু প্রথমদিনের ব্যবসা নির্মাতাদের বেশ ভাবিয়ে তুলেছে। প্রথমদিনে ৬ কোটি টাকার ব্যবসা আশা করা হয়েছিল। সূত্রের খবর, ‘ছপক’ প্রথম দিনে ৫ কোটি টাকার কাছাকাছি ব্যবসা করেছে। ছবি মুক্তির পূর্বে দীপিকার জেএনইউ -এর সমর্থন করার বিষয়টিও উঠে আসছে ছবির ব্যবসার প্রসঙ্গে। বহু মানুষ এই ছবি দেখবেন না বলে জানিয়েছেন।

পাশাপাশি অজয় দেবগনের ‘তানাজি’ ছবিটি ‘ছপক’ এর চরম প্রতিদ্বন্দ্বি হয়ে দাঁড়িয়েছে। হিন্দি সহ মারাঠী ভাষায় মুক্তি এবং তূলনামূলক অনেক বেশি স্ক্রিন পাওয়ায় অজয়ের ‘তানাজি’ ব্যবসায় বেশ এগিয়ে রয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে। খবর, প্রথম দিনে ১৬ কোটির ব্যবসা করে ‘তানাজি’।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।