ফের তিনদিন ঝড়বৃষ্টি রাজ্যে, জানালো হাওয়া অফিস

ফোর্থ পিলার

হাঁসফাঁস করা গরম থেকে কিছুটা স্বস্তি মেলার আভাস পাওয়া গেল। ফের ঝড়বৃষ্টির খবর শোনালো আলিপুর হাওয়া অফিস। আগামী তিন দিন কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে ঝড়বৃষ্টি হবে। একথা জানা যাচ্ছে। তবে তার প্রভাব কতটা পড়বে? সেই সম্পর্কে সঠিক কোনও তথ্য নেই।

চৈত্র মাসে এবার দফারফা অবস্থা। কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের মানুষ বেসামাল গরমে কাহিল। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এখনই প্রায় ৪০ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলেছে। বেলা গড়াতে আর রাস্তায় কাজকর্মের জন্য থাকা যায় না। গত রবিবার প্রথম বৃষ্টি পেয়েছে দক্ষিণবঙ্গ। বর্ধমান, বীরভূম, পশ্চিম মেদিনীপুর সহ বেশ কিছু জেলায় ভালো পরিমাণে বৃষ্টি হয়। ঝড়ের গতিবেগ ছিল যথেষ্ট বেশি। বর্ধমান ও মুর্শিদাবাদে শিলাবৃষ্টি হয়।

কলকাতাও প্রায় ৪৫ কিলোমিটার বেগে ঝড় পেয়েছে ওই দিন। তাপমাত্রা কিছুটা কমেছে তারপর থেকে। ফের ঝড়বৃষ্টি হবে। এই কথা জানালো আলিপুর আবহাওয়া দফতর। আগামী ৮,৯ ও ১০তারিখে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি হবে। বিকেলের পরে ভ্যাপসা গুমোট আবহাওয়া কাটিয়ে ঝড় উঠবে। আগামী ১০ তারিখ রাজ্যতে চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ। ওই দিন হাওড়া, হুগলি, বর্ধমান, বীরভূম, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলাতে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা থাকছেই।

রবিবারের কালবৈশাখী কিছুটা স্বস্তি দিয়েছিল সোমবার। তবে মঙ্গলবার সেই অস্বস্তির কারণ আবার বেড়েছে। আজ বুধবার দৈনিক তাপমাত্রা কিছুটা কম। রোদের তেজ রয়েছে। তবে হাওয়া বইছে। সেই কারণে খুব একটা অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরি হয়নি। আজ বুধবার দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.৩ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। দুটি তাপমাত্রাই স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি করে কম। বৈশাখ মাস এখনও পড়েনি। তার আগেই হাঁসফাঁস অবস্থা গোটা বাংলা জুড়ে। চৈত্র মাসেই এবার লাগামছাড়া গরম দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।