বক্সায় আনা হচ্ছে তিনটি বাঘ

ফোর্থ পিলার

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্প কার্যত তৈরি হয়ে গিয়েছে। এখন অপেক্ষা তাদের আগমনের। জানা গিয়েছে সম্পূর্ণ সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। অসম থেকে তিনটি বাঘ আসছে আলিপুরদুয়ারের বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে। প্রতিবেশী রাজ্য অসমের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা আগেই অনেক দূর পর্যন্ত গড়িয়েছিল। করোনা ভাইরাস আবহে সেই কার্যক্রম থমকে গিয়েছিল মাঝখানে।

উত্তরবঙ্গ সফরে এসে রাজ্যের প্রধান মুখ্য বনপাল রবিকান্ত সিনহা এই সুখবরের কথা শুনিয়েছেন। প্রথম পর্বে তিনটি বাঘ আনার জন্য ১২ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছে ন্যাশনাল টাইগার কনজারভেশন অথরিটি। জানা গিয়েছে, এই ব্যাঘ্রপ্রকল্পতে ছটি বাঘ আনার জন্য সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বন দফতর প্রথমে ঝুঁকি নিতে চাইছে না। সে কারণে তিনটি বাঘ নিয়ে আসা হবে। পরিস্থিতি বুঝে আগামী দিনে আরও তিনটি বাঘ নিয়ে আসার ব্যবস্থা হবে।

ইতিমধ্যেই বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের জন্য এলাকা সাজানো হয়ে গিয়েছে। প্রচুর পরিমাণে চিতল হরিণ ছাড়া হয়েছে প্রকল্পের ভিতর। আগামী দিনে সম্বর হরিণ ছাড়া হবে। হরিণের খাবারের জন্য প্রয়োজনীয় তৃণভূমি তৈরি করা হয়েছে। আরও তৃণভূমি বানানোর জন্য ব্যবস্থা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে তিনটি বাঘের মাধ্যমে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে চাইছে বন দফতর। সব ঠিক থাকলে এই ব্যাঘ্র প্রকল্পকে আরও ঢেলে সাজানো হবে।

এই ব্যাঘ্র প্রকল্পের অনতিদূরেই বেশ কয়েকটি বনবস্তি রয়েছে। জঙ্গলের কোর এলাকা থেকে বনবস্তির বাসিন্দাদের সরানো এখন মুখ্য কর্তব্য। জানা গিয়েছে সেখানে ৩৭ টি বনবস্তি রয়েছে। পরিবারপিছু জমি ও ১০ লক্ষ টাকা করে অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা হয়েছে। কিন্তু এখনও তাদের কাছ থেকে কোনও সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না। যদিও আর বেশি দেরি করতে রাজি নয় বন দফতর।এই ব্যাঘ্রপ্রকল্প চালু করার অপেক্ষায় দিন গোনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।