বাড়ির সামনেই গুলিতে খুন হলেন সিপিএম কর্মী

ফোর্থ পিলার

রাতে ঘর থেকে বের হতেই গুলি চালানো হল সিপিএম কর্মীকে লক্ষ্য করে। মাথায় গুলি লেগে খুন হলেন সিপিএম কর্মী। রায়গঞ্জের ডালখোলায় মঙ্গলবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। মৃতের নাম গুরুচাঁদ রায় (৬০)। তৃণমূল ও বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে বলে সিপিএম দাবি করছে। যদিও অন্য দুই দল এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। পুলিশ মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গুরুচাঁদ রায়ের বাড়ি ডালখোলা হাসান গ্রামে। মঙ্গলবার রাতে মোটরবাইকে করে দুই যুবক এসেছিল। তার নাম ধরে ডাকাডাকি করা হয়। গুরুচাঁদ রায় ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসেন। সে সময় খুব কাছ থেকে তাকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। মাথায় গুলি লাগে তার। মোটরবাইক নিয়ে চম্পট দেয় দুই যুবক। স্থানীয়রা ছুটে আসে ঘটনাস্থলে।

তাকে উদ্ধার করে বিহারের কিষাণগঞ্জের এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃতদেহ পুলিশ নিয়ে যায়। রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপি ও তৃণমূল জড়িত বলে দাবি করছে স্থানীয় সিপিএম নেতা। যদিও এই অভিযোগ মানতে নারাজ তৃণমূল ও বিজেপি নেতৃত্ব।

স্থানীয় লোকজন জানাচ্ছেন, সালিশি সভায় নিদান দিতেন গুরুচাঁদ রায়। সম্প্রতি একটি ঘটনায় কয়েকজন যুবককে অভিযুক্ত করা হয়েছিল। তাদের শাস্তির কথা বলেছিলেন গুরুচাঁদ। ক্ষমা চাইতেও বলা হয় ওই যুবকদের। সেই ঘটনার পরে প্রতিহিংসার হিসেবে এই খুন হতে পারে। এমনটা মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।