ভেন্টিলেটর অডিট করতে হবে, বৈঠকে নির্দেশ মোদির

ফোর্থ পিলার

করোনা পরিস্থিতিতে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তিনি দীর্ঘ সময় আলোচনা করেন। একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে সামনে আনা হয়েছে। অতিরিক্ত সময়ে কেন্দ্রের পাঠানো ভেন্টিলেটর ও চিকিৎসা সামগ্রী দ্রুত খারাপ হয়ে যাচ্ছে। এই অভিযোগ পঞ্জাব ও রাজস্থানের থেকে উঠে এসেছে। অপ্রত্যাশিতভাবে প্রধানমন্ত্রী এদিন ভেন্টিলেটর অডিট করার কথা জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্যতে উঠে এসেছে অনেক রাজ্য ঠিকমতো ভেন্টিলেটর ব্যবহার করছে না। চিকিৎসা সরঞ্জাম ও ভেন্টিলেটর পড়ে থাকছে রাজ্যের গুদামগুলোতে। এই তথ্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসেছে। কী পরিমাণ ব্যবহার হচ্ছে রাজ্যগুলিতে? সেই বিষয়ে জানতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে এই বক্তব্য নিয়েও রয়েছে প্রশ্ন। কংগ্রেস পরিচালিত পঞ্জাব ও রাজস্থানে থেকে এই বিষয়ে আগে বক্তব্য রাখা হয়েছিল। এই দুই রাজ্যের বক্তব্য, কেন্দ্রের পাঠানো চিকিৎসা সরঞ্জাম খারাপ থাকছে। অথবা কিছুদিন ব্যবহার করার পর খারাপ হয়ে যাচ্ছে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে দেখা দিচ্ছে সমস্যা।

পিএম কেয়ার ফান্ডে এই ভেন্টিলেটর ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানো হচ্ছিল রাজ্যগুলিতে। এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলে মন্তব্য করেছেন। সরাসরি এবার ভেন্টিলেটার অডিট করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ভারতবর্ষে করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত ভয়াবহ আকার নিয়েছে। শহর ও শহরতলি তো বটেই, গ্রামাঞ্চলেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনা। আশা ও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের আরও শক্তিশালী করার জন্য জোর দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। আশা ও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলে চিকিৎসা পরিষেবা আরও বেশি করে ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব।

গ্রামাঞ্চলে যাতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন পাওয়া যায়। সেদিকে নজর দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশের টিকাকরণ কর্মসূচিতে আরও গতি বাড়াতে হবে। সেই মর্মে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী। ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে দ্বিতীয় টীকাকরণ কি অবস্থায় রয়েছে? সে সম্পর্কেও তথ্য চেয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। বিশ্বের ৪৪ টি দেশে ভারতীয় স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জন্য ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ভারতকে সরাসরি দায়ী করেছেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ভারতীয় স্ট্রেন নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন। এই অবস্থানে প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আরও একদফা জরুরি বৈঠক করলেন শনিবার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।