মহারাষ্ট্র ও কেরলের করোনা পরিস্থিতি বাড়াচ্ছে উদ্বেগ

ফোর্থ পিলার

ভারতে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি এই মুহূর্তে ইতিবাচক পরিস্থিতিতে রয়েছে। তবে মহারাষ্ট্র ও কেরল, এই দুই রাজ্য নিয়ে এই মুহূর্তে যথেষ্ট দুশ্চিন্তা ছড়াচ্ছে। প্রায় পাঁচ হাজারের কাছাকাছি দৈনিক সংক্রমণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে এই দুই রাজ্যে এখন। দেশের মোট আক্রান্তের ৭০ শতাংশ এই মুহূর্তে এই দুই রাজ্যে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক রীতিমতো দুশ্চিন্তায় এই চিত্র প্রসঙ্গে। গত দু’মাসে মহারাষ্ট্রের সংক্রমণ পরিস্থিতি বাড়তে শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক তথ্য দিয়েছে। দেখা যাচ্ছে নতুন সংক্রামিত রোগীদের প্রায় তিনের চার শতাংশ এই দুই রাজ্য থেকে দেখা যাচ্ছে। বুধবার মহারাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭৮৭ জন। কেরলে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮৮২ জন।

সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা হচ্ছিল না এই দুই রাজ্যে। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যেতে বসেছে। মহারাষ্ট্রে লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু করে দিয়েছে অনেক আগে থেকেই। সেখানেও দূরত্ববিধি কিছুতেই মানা হচ্ছিল না। করোনা ভাইরাস আক্রমণের শুরু থেকেই মহারাষ্ট্র ও কেরল নিয়ে দুশ্চিন্তা রয়েছে। বাণিজ্যনগরী মুম্বইতে সংক্রমণ বরাবরই ঊর্ধ্বমুখী ছিল৷ দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর তালিকায় সব রাজ্যের থেকে উপরে মারাঠা রাজ্য। কেরলও প্রথম পাঁচের তালিকায় রয়েছে।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সাধারণ মানুষ যাতে সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলেন, সেই বার্তা দেওয়া হচ্ছে। বিয়ে ও অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠানে সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা খুব প্রয়োজনীয়। সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে চলা না হলে আরও একবার মহারাষ্ট্র লকডাউনের ভাবনায় যাবে। এই কথা বলা হচ্ছে। এই মুহূর্তে গোটা দেশে করোনা ভাইরাসে দৈনিক আক্রান্ত হচ্ছেন ১০ থেকে ১২ হাজারের মধ্যে। এই দুই রাজ্যে সব থেকে বেশি সংক্রমণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।