মাঠে নেমেই হাফ সেঞ্চুরি, গেইল ‘দ্য বস’

ফোর্থ পিলার

দীর্ঘ সময় মাঠের বাইরে অপেক্ষা করেছেন তিনি। হাসপাতালে মাঝে ঘুরে এসেছেন একদিনের জন্য। নিজের পছন্দের ওপেনিংয়ের জায়গা পাননি। তবে মাঠে নেমে বুঝিয়ে দিলেন তিনি একইরকম আছেন। পাঁচটা লম্বা ছয় পঞ্জাবকে খাঁদের কিনারা থেকে তুলে নিয়ে এল। আর সঙ্গে শেষ করে দিল বিরাট কোহলিদের টুর্নামেন্টে একধাপ এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন।

ক্রিস গেইল এবার আইপিএলের প্রথম মাঠে নামলেন। প্রথম ম্যাচেই দুরন্ত হাফ সেঞ্চুরি। খেলার সেরা শিরোপা তুলে নেওয়া। বরাবর আলোচনায় থেকেছেন ক্রিস গেইল। একের পর এক হারের সময় ক্রিস গেইলকে কেন মাঠে নামানো হচ্ছে না? তাই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। শেষ পর্যন্ত রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে মাঠে নামলেন ইউনিভার্স বস। ব্যাট হাতে তিনি এদিন ওপেন করেননি। এ কথা সত্যি। তবে তার খেলা দেখে আপ্লুত দর্শকরা। আর কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের স্ট্র্যাটেজি মেকাররা ভাবছেন, কেন আগে খেলানো হল না ক্রিস গেইলকে?

১৭১ রান তাড়া করতে মাঠে নেমেছিলেন অধিনায়ক কে এল রাহুল ও মায়াঙ্ক আগরওয়াল। প্রতিবারের মতো এবারও এই জুটি রান করতে থাকে দ্রুত। মায়াঙ্ক ৪৫ রানে ফিরে যান। এবার মাঠে নামেন ক্রিস গেইল। ব্যাটের স্টিকারে লেখা আছে ‘দ্য বস’। বেশ কয়েকটি বল খেলা হয়ে গিয়েছে। ব্যাটে রান আসছে না। তারপরেই শুরু করলেন রাজকীয় ভঙ্গিমায়। ১৫ বলের মাথায় একটি ছয়। সোজাসুজি গিয়ে পড়ল সাইড স্ক্রিনে। মূলত গেইলের ব্যাটে ভর করেই শেষ পর্যন্ত জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেল কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। অর্ধশত রান পূরণ করলেন তিনি।

সে সময় ডাগআউটে প্রত্যেককে তিনি ব্যাটের লেখাটি দেখাচ্ছেন। ‘দ্য বস’ ইজ কাম ব্যাক। একেকটি ছয় মারার পরে জায়ান্ট স্ক্রিন ফুটে উঠেছে, ‘ইউনিভার্স বস’ ‘গেইল স্ট্রম’ লেখা। ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি। এই কথা সত্যি। এক বল বাকি থাকতে আউট হয়ে যান তিনি। শেষ বলে ছয় মেরে ম্যাচ জেতান নিকোলাস পুরান। গেইল মানেই একজন এন্টারটেইনার। আরও একবার সে কথা প্রমাণ হয়ে গেল। এদিন ম্যাচের নায়ক এই ক্যারাবিয়ান ব্যাটসম্যান।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।