মানিকতলায় ব্যাটারি কারখানায় আগুন, আতঙ্ক

ফোর্থ পিলার

মধ্য কলকাতার মানিকতলায় ব্যাটারি কারখানায় ভয়াবহ আগুন লাগল। বুধবার দুপুরে এই আগুন লাগে। কারখানাটি জনবসতিপূর্ণ এলাকায়। মধ্য কলকাতা মানে ঘিঞ্জি এলাকা। তার মধ্যেই তিনতলা বাড়িতে ওই কারখানা চলে। দমকলের ১০ টি ইঞ্জিন এসে দীর্ঘসময়ের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বহু টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে।

কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন আয়ত্তে আনেন দমকলকর্মীরা। রীতিমতো প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে দমকলকর্মীরা কাজ করেছেন। ঘিঞ্জি এলাকায় আগুন নেভাতে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে তাদের। পাশাপাশি আজ উত্তরে হাওয়া বইছে শহরে। তাই আগুন খুব তাড়াতাড়ি ছড়িয়ে পড়েছিল। এদিন দুপুরে স্থানীয়রা কালো ধোঁয়া দেখতে পান। বুঝতে পারা যায় ওই বাড়িতে আগুন লেগেছে। বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ- এর উল্টোদিকে রাস্তায় এই ব্যাটারি কারখানা রয়েছে।

মুহূর্তে ভিড় জমে যায় এলাকায়। কিছু সময়ের মধ্যেই গলগল করে কালো ধোঁয়া বেরোতে শুরু করে। গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়াতে থাকে। দমকল কর্মীরা এসে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন। ততক্ষণে আগুন যথেষ্ট লেলিহান শিখা নিয়ে ছড়িয়ে পড়েছে। দমকলের দুটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে আসে। ঘিঞ্জি এলাকা, তাই যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে দমকল কর্মীদের। ছোট রাস্তায় গাড়ি ঢোকানো সব ক্ষেত্রে সম্ভব হয়নি। দমকলকর্মীরা কার্যত খুব সমস্যায় পড়েন।

পাশাপাশি বাড়ির ছাদ, টিনের চালে উঠে আগুন নেভাতে শুরু করেন তারা। তিনতলা বাড়িটির দোতলায় কারখানাটি ছিল। সেখানেই আগুন লাগে। ভিতরে প্রচুর পরিমাণে মজুত ছিল দাহ্য বস্তু। তাই দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘসময়ের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আশেপাশের বাড়িতে কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে আগুন ছড়িয়ে পড়লে আশেপাশের বাড়িতে বিপদ হওয়ার সম্ভাবনা থাকত। শর্ট সার্কিট থেকে এই আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। ফরেনসিক দল এসে নমুনা সংগ্রহ করবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।