মারা গেলেন অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ

ফোর্থ পিলার

দীর্ঘ রোগ ভোগের পরে মারা গেলেন অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ। আজ সোমবার বিকেলে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। গতকাল থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক হয়ে গিয়েছিল। সকালে অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছিলেন, পরিস্থিতি ক্রমশ আয়ত্বের বাইরে চলে গিয়েছে।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তরুণ গগৈ। ২৫ আগস্ট তিনি করোনা আক্রান্ত হন। টানা ২ মাস তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২৫ অক্টোবর করোনামুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান। তবে কোনওভাবেই শারীরিকভাবে সুস্থ হয়ে ওঠেননি। একের পর এক শরীর খারাপ শুরু হতে থাকে। একাধিক অঙ্গ বিকল হতে শুরু করে। ফের ২ নভেম্বর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। শরীর ক্রমে অসার হতে শুরু করে। মাল্টি অর্গান ফেলিওর শুরু হয়। চেতনা চলে গিয়েছিল তরুণ গগৈর। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, ইন্দিরা গান্ধীর বক্তৃতা শোনানো হয়েছে দীর্ঘদিন তাকে। জানা গিয়েছে, অবসর সময়ে তরুণ গগৈ ইন্দিরা গান্ধির বক্তৃতা শুনতেন। সেই ধারণা থেকেই বক্তৃতা চালানো হয়। কিন্তু কোনও সাড়া মেলেনি।

গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজের চিকিৎসকরা আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু আর তাকে ফিরিয়ে আনা যায়নি। ভেন্টিলেশনে দীর্ঘদিন ধরেই তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। তরুণ গগৈ টানা ১৫ বছর অসমের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধী, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং সহ অন্যান্যরা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।