মার্ভেলের ‘ব্ল্যাকপ্যান্থার’ আর নেই, ৪১ বছরে চলে গেলেন চ্যাডউইক বোসম্যান

ফোর্থ পিলার

একটি নক্ষত্রের পতন। আক্ষরিক অর্থে সুপারহিরোর মৃত্যুতে একথাই প্রকাশ পাচ্ছে। বিশ্বজুড়ে হলিউডের অন্যতম চরিত্র মার্ভেল সিরিজের ‘ব্ল্যাকপ্যান্থার’ আর নেই। কোলন ক্যান্সারে দীর্ঘ সময় ধরে ভুগছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চ্যাডউইক বোসম্যান। সিনেমার একের পর এক গল্পতে তিনি দুর্ধর্ষ জয় পেয়েছেন। জীবনযুদ্ধে তাকে হেরে যেতে হল। মাত্র ৪১ বছর বয়সে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। তার মৃত্যুতে গভীর ছায়া নেমেছে সিনেমা জগতে।

সুপারহিরোদের মধ্যে মার্ভেল সিরিজ এক অন্যতম জনপ্রিয় অধ্যায়। চ্যাডউইক বোসম্যান ব্ল্যাকপ্যান্থার চরিত্রে অভিনয় করতেন। এই চরিত্রটি এক সাড়া জাগানো ছাপ ফেলেছে। দর্শকরা তার অভিনয়ে অত্যন্ত খুশি ছিলেন। তার কাজ মুগ্ধ হয়ে দর্শকরা অনুভব করতেন। এই পরিস্থিতিতে কেউ জানতেন না ব্ল্যাকপ্যান্থার নিজে দুরারোগ্য ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত। গত চার বছর ধরে তিনি কোলন ক্যানসারের সঙ্গে লড়ছিলেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি মারা গিয়েছেন। পরিবারের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, লস এঞ্জেলেসের বাড়িতেই তিনি বেশ কয়েকদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। মাত্র ৪১ বছর বয়সে তাকে চলে যেতে হল। পরিবারের সদস্যরা মৃত্যুর সময় তার কাছেই ছিলেন। তার মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়েছে প্রিয়জনদের। দীর্ঘ চার বছর ধরে তিনি দুরারোগ্য ক্যান্সারে ভুগছিলেন। কোলন ক্যান্সারে তিনি অস্বাভাবিক কষ্ট পাচ্ছিলেন। গত চার বছরে তার একাধিক অপারেশন হয়েছে।

অভিনয় জীবনে তিনি একাধিক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন সাংবাদিকদের কাছে। তার নিজের এই মারণ রোগ সম্পর্কে কাউকে জানতে দেননি। পরিবারের খুব প্রিয়জন ছাড়া আর কেউ তার ক্যান্সার আক্রান্তের কথা জানতেন না। বিভিন্ন সময়ে তার কেমোথেরাপি চলেছে। সমস্ত যন্ত্রণা ভোগ করার পর তিনি ক্যামেরার সামনে উপস্থিত হয়েছেন। একের পর এক রোমহর্ষক ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। তার অত শরীর খারাপকে তিনি হালেই উপেক্ষা করেছেন। শুটিংয়ের সময় কোনওদিন বুঝতে দেননি তার অসুস্থতার কথা।

ব্ল্যাকপ্যান্থার – এর আগে তার আরও দুটি সাড়া জাগানো চরিত্র রয়েছে। জ্যাকি রবিনসন ও জেমস ব্রাউন — এই দুই চরিত্রে তিনি অসাধারণ দক্ষতার ছাপ রেখেছিলেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন অভিনেতা – অভিনেত্রীরা। মার্ভেল সিরিজের পক্ষ থেকেও গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে। তার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ফ্যানেরা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।