মাস্ক না পরলে ২ হাজার টাকা জরিমানা দিল্লিতে

ফোর্থ পিলার

মাস্ক না পরলে দুই হাজার টাকা ফাইন। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এই কথা জানিয়েছেন। নিজের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এই বার্তা পোস্ট করেছেন তিনি। দিল্লিতে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় রাজধানীতে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় সাড়ে সাত হাজার। এই সংক্রমণ ঠেকাতে উঠেপড়ে লেগেছে দিল্লি সরকার।

তথ্য বলছে গত দু’মাসে দিল্লিতে জনসচেতনতা কমে এসেছে অনেকটাই। মাস্ক পরে ঘুরতে দেখা যাচ্ছে না বহু মানুষকে। বাজারহাট এলাকাগুলিতে গিজগিজ করছে ভিড়। তাদের বেশিরভাগই মুখে মাস্ক নেই৷ লকডাউন পিরিয়ডে দিল্লিতে সংক্রমণ ঠেকানোর চেষ্টা প্রথম শুরু হয়েছিল। সেইসময় মাস্ক না পরলে জরিমানা করা হবে। একথা জানানো হয়। সেইমতো ৫০০ টাকা জরিমানা রাখা হয়েছিল। এবার সেই টাকার অঙ্ক বাড়িয়ে ২ হাজার করা হল।

গত একমাস ধরে দিল্লিতে সংক্রমণের মাত্রা ঊর্ধ্বমুখী। করোনা সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ দিল্লিতে রয়েছে। প্রথমে বলা হয়েছিল দেড় মাসের মধ্যে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসবে। কিন্তু পরিস্থিতি এত তাড়াতাড়ি উন্নত হবে না। একথা মনে করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সঙ্গে দিল্লির সরকার এই বিষয়ে আলোচনা করেছে। এই মুহূর্তে দিল্লিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৫ লক্ষের বেশি।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১০০ জন মারা গিয়েছে দিল্লিতে। গত এক সপ্তাহে ৫১ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তথ্য বলছে দিল্লির প্রতিটি পরিবারে একজন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন এই মুহূর্তে। দিল্লি সরকার জানাচ্ছে বাজার এলাকাগুলিতে মাস্ক পরা হচ্ছে না। সংক্রমণ সেখান থেকেও আসতে পারে। অবিলম্বে দিল্লির প্রত্যেকটি বাজার বন্ধ করা হবে বলে অন্দরের খবর। তবে নতুন করে লকডাউনের পথে যাচ্ছে না দিল্লির সরকার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।