মেডিকেল কলেজে একসঙ্গে ৩৮ জন চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত

ফোর্থ পিলার

কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একসঙ্গে ৩৮ জন চিকিৎসক করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবার এই রিপোর্ট এসেছে। রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়েছে হাসপাতালে৷ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন চিকিৎসক-নার্স স্বাস্থ্যকর্মীরা। একসঙ্গে এত জন চিকিৎসক এর আগে রাজ্যে এক জায়গায় হাসপাতালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি।

চিকিৎসা পরিষেবায় সমস্যা তৈরি হতে পারে। এই আশঙ্কা করেছে কর্তৃপক্ষ। স্বাস্থ্য দফতরের সঙ্গে মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মঞ্জু মুখোপাধ্যায় যোগাযোগ করেছেন। চিকিৎসক প্রয়োজন মেডিকেল কলেজে। এই কথা জানানো হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতর থেকে সবুজ সংকেত জানানো হয়েছে চিকিৎসক দ্রুত পৌঁছে যাবে মেডিকেল কলেজে।

হাসপাতাল সূত্রে খবর ৩৮ জনের মধ্যে ২৬ জন পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ট্রেনি বা পিজিটি চিকিৎসক রয়েছেন। এছাড়াও ১২ জন শিক্ষক চিকিৎসক আক্রান্ত। এর আগেও মেডিকেল কলেজে একাধিক চিকিৎসক নার্স স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছিলেন। কিন্তু এবারই একসঙ্গে এত জন চিকিৎসক আক্রান্ত হলেন। প্রথম এই ঘটনা ঘটেছে বলে এখনও খবর। রাজ্যে একমাত্র করোনা ভাইরাস ট্রিটমেন্টের জন্য মেডিকেল কলেজকে চিহ্নিত করা হয়েছিল।

বহু মানুষ এই মুহূর্তে মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন। এছাড়াও প্রতিদিন বাইরে থেকে করোনা আক্রান্ত হয়ে মেডিকেল কলেজে আসছেন অনেকে। এত জন চিকিৎসক আক্রান্ত হলে সাধারণ রোগীদের পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা হবে। এই দুর্ভাবনা ছড়িয়েছে ইতিমধ্যেই। ৩৮ জনের চিকিৎসা শুরু হয়ে গিয়েছে। ফলে চিকিৎসকের সংখ্যায় ঘাটতি তৈরি হয়েছে। মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মঞ্জু মজুমদার ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য দফতরের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

হাসপাতাল বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন। নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন এই ঘটনায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর থেকে জানানো হয়েছে, অবিলম্বে বাইরে থেকে চিকিৎসক কাজের জন্য মেডিকেল কলেজে পৌঁছাবেন। পরিসেবার ক্ষেত্রে যাতে কোনও সমস্যা না হয়, সেদিকে সম্পূর্ণ নজর রাখা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।