রবীন্দ্র সরোবরে কড়া নিরাপত্তা, নজরবন্দি গোটা এলাকা

ফোর্থ পিলার

দেশের সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়েছে রবীন্দ্র সরোবরে কোনও ছটপুজোর অনুষ্ঠান হবে না। পরিবেশ রক্ষা করতে হবে রবীন্দ্র সরোবর এলাকার। কলকাতা পুলিশের কাছে এটি সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ। তাই আজ শুক্রবার সকাল থেকেই নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে রবীন্দ্র সরোবর এলাকা। কোনও সাধারণ মানুষকেই রবীন্দ্র সরোবরের রাস্তার কাছ পর্যন্ত যেতে দেওয়া হচ্ছে না। লেক গার্ডেনস স্টেশনের ফুটব্রিজের একটি অংশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এই কারণে।

দিন কয়েক আগে থেকেই রবীন্দ্র সরোবর প্রাঙ্গন এলাকা ঘেরার কাজ চলছিল। আমফানের সময় সরোবরের বেশ কয়েকটি জায়গার পাঁচিল ভেঙে যায়। সে সমস্ত জায়গা বাঁশ, টিন দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, সরোবরের গেটগুলি সম্পূর্ণ বন্ধ। সেখানে পুলিশ পিকেটিং চলছে। কলকাতা পুলিশের তরফ থেকে প্রচুর পরিমাণে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এলাকায় টহলদারি চলছে পুলিশের।

কিছু সাধারণ মানুষ ছটপুজো করার জন্য রবীন্দ্র সরোবরে এসেছিলেন। তাদেরকে পত্রপাঠ বিদায় করা হয়েছে। কোনও মানুষকেই সরোবরের পাঁচিলের কাছ পর্যন্ত যেতে দেওয়া হচ্ছে না। সকালের দিকে লেক গার্ডেন স্টেশন দিয়ে কয়েকজন যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। পুলিশ তাদেরও আটকায়। এরপরেই লেকগার্ডেনস স্টেশনের ওই এলাকায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। ফুটব্রিজের একটি অংশ বন্ধ করে দেওয়া হয়।

গত বছর কার্যত নিরাপত্তার’ বেড়া ভেঙে সাধারণ মানুষ রবীন্দ্র সরোবরে ঢুকে গিয়েছিল। ছটপূজার অনুষ্ঠান হয়। পরিবেশ আদালতের বারণ সত্তেও সাউন্ড বক্স বাজানো থেকে শুরু করে আতশবাজি পোড়ানো, সবকিছুই চলে। প্রশাসন কার্যত ঠুঁটো জগন্নাথ হয়েছিল গত বছরে। মরা মাছ ও কচ্ছপ পরে সরোবরের জলে ভাসতে দেখা যায়। এবার আরও কড়া মনোভাব নিয়েছে আদালত। গ্রিন ট্রাইবুনাল এবার আরও কড়া পদক্ষেপ নিতে বলেছে প্রশাসনকে।

ছটপুজো যাতে না হয় সরোবরে, হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছিল। কলকাতা হাইকোর্ট সেই আবেদনকে মান্যতা দিয়েছে। কলকাতা পুরসভা ধর্মীয় আচার ব্যবহারে কোনওরকম হস্তক্ষেপ করতে চায় না। তাই হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। গতকাল সুপ্রিম কোর্টে শুনানির রায় শুনিয়েছে। বলা হয়েছে, রবীন্দ্র সরোবর এলাকায় কোনও ছটপুজোর আয়োজন করা যাবে না। গ্রীন ট্রাইব্যুনালের রায়ই বলবৎ থাকবে।

এই রায়ের পর থেকেই রবীন্দ্র সরোবর এলাকা সম্পূর্ণ ঘেরার কাজ আরও জোরকদমে বাড়ানো হয়। কোনওভাবে আজ পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে যেতে দিতে চায় না প্রশাসন। বেলা একটা পর্যন্ত পাওয়া খবরে কোনও অযাচিত ঘটনা সরোবর প্রাঙ্গণে ঘটেনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।