রাজ্যে দৈনিক করোনা আক্রান্ত ১৯৫৭ জন, কলকাতায় ৬৩৪

ফোর্থ পিলার

রাজ্যের দৈনিক সংক্রমণ চলতি বছরের সর্বাধিক হল। রবিবার সন্ধ্যায় করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য প্রকাশিত হয়। দেখা যায় শেষ ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে প্রায় দুই হাজার করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। রাজ্যে ভোটের প্রচার চলছে। কোনওরকম বিধিনিষেধ মানা হচ্ছে না। কাজেই সেই হিসেবে সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেক বেশি করে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। এই কথা মনে করছেন চিকিৎসকরা।

রবিবার দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৯৫৭ জন। মারা গিয়েছেন চারজন। সুস্থ সংখ্যা অনেকটাই কম। গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৪৪ জন। কলকাতা করোনা সংক্রমণে সব থেকে উপরে রয়েছে। অন্যান্য জেলাগুলির মধ্যে মহানগরে করোনার দৈনিক সংক্রমণ রবিবার ছিল ৬৩৮। এই সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। উত্তর ২৪ পরগনায় দৈনিক সংক্রমণ ৪৬২। হাওড়াতে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭৪ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১২০ জন।

হুগলিতে আক্রান্ত হয়েছেন 103 জন। দার্জিলিঙে সংক্রমণ বাড়ছে। পাহাড়ের এই জেলায় দৈনিক সংক্রমণ দেখা গিয়েছে ৪০ জন। রাজ্যে এখন অবধি মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১০,৩৪৪ জন। মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ লক্ষ ৯৩ হাজার ৬১৫ জন। করোনা জয় করেছেন ৫ লক্ষ ৭৩ হাজার ১১৮ জন। দৈনিক টেস্টের সংখ্যা প্রায় ২৭ হাজার। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়াতে হবে। তাহলে দৈনিক সংক্রমণ অনেকটাই বেড়ে যাবে। একথা মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

রাজ্যে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি আগামী মে-জুন মাসে ভয়াবহ আকার নেবে। এই কথা বলা হচ্ছে। পরিস্থিতি ভয়াবহ হতে পারে। ভোটের প্রচারে গত জানুয়ারি মাস থেকেই কার্যত জনসমাবেশ হচ্ছে। কোনও নিয়ম-কানুন মানা হচ্ছে না করোনার ক্ষেত্রে। শুধু তাই নয়, আরও বেশি মানুষের ঢল নামতে শুরু করেছে রাস্তাঘাটে। প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল তাদের কর্মসূচি চালাচ্ছে। তাই পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে থামবে? তার কোনও ইয়ত্তা পাওয়া যাচ্ছে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।