রাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ১২ হাজার করোনা আক্রান্ত, মৃত্যু ৫৬ জনের

ফোর্থ পিলার

রাজ্যের করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ জায়গায় যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য দিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। প্রায় ১২ হাজার আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে রাজ্যে। মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে প্রতিদিন। কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনা এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের অন্যতম কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। হাসপাতালগুলিতে করোনা রোগীদের তিল ধারণের জায়গা নেই।

ধাপার মাঠে করোনার রোগীদের দেহ সৎকারের চুল্লি গত ২৪ ঘন্টা ধরে অনবরত কাজ করছে বলে খবর। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য প্রকাশ করেছে। গত ২৪ ঘন্টায় দেশে ১১,৯৪৮ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হওয়ার সংখ্যা অর্ধেকেরও কম। সুস্থ হওয়ার হার প্রতিদিন নিম্নমুখী। অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা প্রায় ৬৯ হাজার। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে ৫৬ জন মারা গিয়েছেন। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১০,৭৬৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬,৫৯০ জন। সুস্থতার হার ৮৮.৬৫ শতাংশ।

কলকাতায় সংক্রমণ সব থেকে বেশি। গত ২৪ ঘন্টায় মহানগরে ২৬৪৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গিয়েছেন ১৪ জন। উত্তর ২৪ পরগনায় করোনা আক্রান্ত ২৩৭২ জন। মারা গিয়েছেন ১৩ জন। এই দুই জেলা নিয়ে চিন্তিত নবান্ন। দক্ষিণ ২৪ পরগনাতেও লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এই জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৭৯ জন। হাওড়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭১জন। পরিস্থিতি যথেষ্ট ভয়াবহ। রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তর সংখ্যা এদিন ৭ লক্ষ পেরিয়ে গেল। মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬ লক্ষ ৮৮ হাজার ৯৫৬ জন।

আগামী ৫ তারিখ থেকে রাজ্যে টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন সবাইকে বিনামূল্যে করোনার টিকা দেওয়া হবে। রাজ্য সরকার কারোর থেকে অর্থ নেবে না। নির্বাচন কমিশন ষষ্ঠ দফার পরে নিজেদের কঠোর মনোভাব প্রকাশ করল। বড় সভা, র‍্যালি, মিছিল নিষিদ্ধ হল রাজ্যে। ৫০০ জনের বেশি লোক নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলি সভা করতে পারবে না। সভায় সামাজিক দূরত্ববিধি মানতে হবে। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কথা কলকাতা হাইকোর্ট নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এবার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।