রামমন্দির দ্রুত তৈরি করা একমাত্র কর্তব্য, জানালেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত

ফোর্থ পিলার

সুপ্রিম কোর্ট অতি ধৈর্য সহকারে সব দিক বিচার করে রায় দিয়েছে। এবার দ্রুত রাম মন্দির তৈরি করার লক্ষ্যে এগোতে চান মোহন ভাগবত। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে এমন বক্তব্য প্রকাশ করলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের প্রধান ভাগবত। তিনি জানিয়েছেন, রাম জন্মভূমিতে রামমন্দির তৈরি করা তাদের প্রধান কর্তব্য।

সর্বোচ্চ আদালত এই রায়ের মধ্যে দিয়ে দেশের সমস্ত মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসকে মর্যাদা দিয়েছে। রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘ সুপ্রিম কোর্টের এই রায়কে স্বাগত জানাচ্ছে। তিনি বলেন,’ আমরা সবাই মিলে রাম জন্মভূমিতে একটি ভব্য রামমন্দির নির্মাণের জন্য আমাদের কর্তব্য পালন করব’।

সুপ্রিম কোর্ট সমস্ত দিক খতিয়ে সমস্ত পক্ষের মতামত বিচার-বিশ্লেষণ করে তবেই মন্দিরের পক্ষে এই রায় দিয়েছে। সেজন্য সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি ও ডিভিশন বেঞ্চের অন্যান্য বিচারপতিদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আরএসএস প্রধান। তিনি মনে করেন কিছু বিশেষ শ্রেণির জন্য এই বিতর্ক এত দীর্ঘায়িত হল। সাধারণ মানুষও শান্ত হয়ে রায়ের জন্য অপেক্ষা করেছিল, সেজন্য ভারতের সাধারণ মানুষকেও তিনি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

তাঁর কথায়, হিন্দুরা এক জায়গায় পুজো করবেন। আর মুসলিমরা কাছে অন্য কোথাও ধর্মাচরণ করবেন। আরএসএসের কোনও সমস্যা নেই এতে। সমাজের কোনও কোনও অংশের মানুষ এই বিষয়টি স্বাভাবিকভাবে নেয় না। এটি বন্ধ হওয়া দরকার বলে তিনি মনে করেন।

উৎসবের সময় আরএসএস প্রধান জানিয়েছিলেন, রামমন্দির ইস্যুতে সংঘের সদস্যদের উত্তেজিত হওয়া চলবে না। কোনও ঝামেলার মধ্যে জড়ানো চলবে না। চলতি মাসের শুরু থেকেই অযোধ্যায় সমস্ত রকম কর্মসূচি থেকে সরে এসেছিল আরএসএস। মোহন ভাগবত – এর গলায় এদিন ছিল অত্যন্ত নমনীয় ভাব। সংঘ প্রধান জানান, ভারতীয় নাগরিকদের আরএসএস হিন্দু বা মুসলিম এই বিভাজনে দেখতে পছন্দ করে না। তারা ভারতের নাগরিক এটাই হল তাদের প্রথম পরিচয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।