রামমন্দির নিয়েও উস্কানি পাকিস্তানের, হুঁশিয়ারি নয়াদিল্লির

ফোর্থ পিলার

পাকিস্তানের ভারতের প্রতি বিদ্বেষ আরও একবার সামনে এল। কাশ্মীর ও ৩৭০ ধারা বিলোপ নিয়ে এতদিন তারা গলা ফাটিয়েছে। এবার রামমন্দির নির্মাণ নিয়েও আপত্তি পাকিস্তানের। এই বিষয়ে ইসলামাবাদকে কড়া হুঁশিয়ারি দিল নয়াদিল্লি।

এদিন ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন , ” সাম্প্রদায়িক হিংসা উস্কে দেওয়ার চেষ্টা করছে। বিরত থাকলেই তাদের মঙ্গল। ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানো পাকিস্তান বন্ধ করুক। ” পাকিস্তানকে নিশানা তিনি আরও তীব্রভাবে আক্রমণ করেছেন। তিনি বলেন , ” সীমান্তে অনুপ্রবেশ চালাচ্ছে পাকিস্তান। সন্ত্রাসবাদীদের মদত দিচ্ছে। নিজের দেশের সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় অধিকার রক্ষায় ব্যর্থ তারা। অন্যের ঘরোয়া ব্যাপার নাক গলানোটা তাদের বদঅভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে।”

বুধবার অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হয়। তারপর থেকেই এই বিষয় নিয়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিচ্ছে পাকিস্তান। তারা চাইছে ভারতের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হোক। যদিও তাদের অসাধু উদ্দেশ্য বুঝতে দেরি হয়নি ভারতের। সূত্রের খবর , রামমন্দির নিয়ে উস্কানি দিয়ে দেশে দাঙ্গা লাগাতে চাইছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আই এস আই। কিন্তু তাদের এই উদ্দেশ্য সফল হবে না।

বিশ্বের দরবারে এই মুহূর্তে একদমই কোণঠাসা পাকিস্তান। নিজেদের দেশের অভ্যন্তরীণ বহু সমস্যা রয়েছে তাদের। কিন্তু তবুও ভারতকে নিয়ে তাদের মানসিকতা পরিবর্তন হয় না। কিছুদিন আগে নতুন ম্যাপে কাশ্মীরকে নিজেদের বলে দাবি করে পাকিস্তান। যদিও সেই ব্যাপারে তেমন কোনও পাত্তাই দেয়নি ভারত। এতেই হয়তো আরও বিগড়ে গিয়েছে তাদের মাথা। তাই চাইছে ভারতের ছবি খারাপ করতে।

প্রসঙ্গত , সেই দেশে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার নতুন কোনও কথা নয়। ইমরান খান ক্ষমতায় এসে সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় অধিকার রক্ষার কথা বললেও বাস্তবে হচ্ছে উল্টোটা। কিছুদিন আগেও পাকিস্তানের একটি ঐতিহাসিক গুরুদ্বার ভেঙে মসজিদ তৈরির চেষ্টার খবর সামনে আসে। এর আগেও এমন ঘটনা বহু ঘটেছে। তাই যাদের ঘর কাঁচের, অন্যের ঘরে ঢিল ছোড়া তাদের মানায় না। এমনটাই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।