শক্তি কমিয়ে স্থলভাগে আঘাত হানল নিভার, গতিবেগ ১১০ কিমি

ফোর্থ পিলার

তামিলনাড়ুতে মধ্যরাতে আঘাত হানল ঘূর্ণিঝড় নিভার। তবে স্থলভাগের ঢোকার সময় তার শক্তিক্ষয় হয়। অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় শক্তি হারিয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড় অবস্থানে ছিল। তার মধ্যেই ধ্বংসলীলা চালিয়েছে নিভার। বহু এলাকায় গাছ পড়ে গিয়েছে। ছোট বাড়ি ভেঙে গুড়িয়ে গিয়েছে। তুমুল বৃষ্টি চলছে তামিলনাড়ু জুড়ে। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে প্রশাসন।

আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, গতকাল রাত আড়াইটে নাগাদ স্থলভাগে আঘাত হানে এই ঘূর্ণিঝড়। প্রথমে বলা হয়েছিল অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আঘাত হানবে। তার গতিবেগ সর্বোচ্চ থাকতে পারে ১৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়। দেখা যায় ১০০ থেকে ১১০ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হেনেছে নিভার। সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ১২০ কিলোমিটার। বুধবার দুপুরের পর থেকেই ঝড়ের গতিবেগ বাড়ছিল। যত রাত বেড়েছে হাওয়ার গতিবেগ তছনছ করেছে সব কিছু। বৃষ্টির ঝাপটা ক্রমশ বেড়েছে। রাত আড়াইটে নাগাদ প্রথম ঝাপটা আসে। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল, স্থলভাগে আঘাত করল নিভার।

এরপরের কয়েক ঘন্টা কার্যত তাণ্ডব চালিয়েছে নিভার। বৃহস্পতিবার সকালে তামিলনাড়ু থেকে পুদুচেরির দিকে নিভার গিয়েছে। সেখানে ক্ষয়ক্ষতি বাড়িয়ে এরপর তার শান্ত হওয়ার পালা। তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, দক্ষিণ কর্ণাটক তিনটি রাজ্যে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়েছে ইতিমধ্যে। বৃষ্টি হয়েছে। ছত্রিশগড়, ওড়িশা রাজ্যে বৃষ্টি হতে পারে। এই কারণে পশ্চিমবঙ্গের আকাশের মুখ ভার। থম মেরে রয়েছে আকাশ।

স্থলভাগের ঢোকার পরে ঘন্টা তিনেক কার্যত বিপর্যস্ত করেছে নিভার। পরবর্তীকালে ঝড়ের গতিবেগ ৬৫ থেকে ৭৫ কিলোমিটার পর্যন্ত হয়ে গিয়েছিল। পরিস্থিতির দিকে সম্পূর্ণ নজর রেখেছিল বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর। সেনাবাহিনীও তৈরি ছিল সব রকম পরিস্থিতির জন্য। রাজ্য প্রশাসন আগে থেকেই সম্পূর্ণ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল। কয়েক লক্ষ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল গত কয়েকদিন ধরে।

গত একদিন ধরে তুমুল বৃষ্টি চলছে তামিলনাড়ুতে। বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার অবস্থা। এখন অবধি শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ২২৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে তামিলনাড়ুতে। আরও বৃষ্টি হবে আগামী একদিন। নদীগুলির জল বিপদসীমার উপর দিয়ে বইতে পারে। সমুদ্র উত্তাল রয়েছে। একের পর এক ঢেউ ভেঙে পড়েছে পাড়ে। বাস পরিসেবা বন্ধ। সাধারণ মানুষকে বাড়ির মধ্যেই থাকতে বলেছে প্রশাসন। ১২ ঘণ্টা বন্ধ চেন্নাই এয়ারপোর্ট।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।