শনিবার মধ্যরাতেই আঘাত হানছে বুলবুল, ঝড়ের গতিবেগ থাকবে ১৩৫ কিমি

ফোর্থ পিলার

আগামী কাল গভীররাতে আছড়ে পড়ছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। রবিবার দুপুরে প্রথমে এই ঝড় সাগরদ্বীপে আছড়ে পড়ার কথা ছিল। এখন জানা যাচ্ছে, রবিবার নয়, শনিবার মধ্যরাতেই বুলবুল আঘাত হানছে। গতিবেগ থাকছে সর্বোচ্চ ১৩৫ কিলোমিটার। সঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর ও দিল্লির মৌসুম ভবন জানাচ্ছে অত্যন্ত দ্রুত ঘূর্ণিঝড় আসছে পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবনের দিকে। যত সময় যাচ্ছে তত শক্তি সঞ্চয় করে প্রবল থেকে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের আকার নিচ্ছে বুলবুল। শনিবার মধ্যরাতে এই ঝড় সম্পূর্ণ আছড়ে পড়বে সুন্দরবন সাগরদ্বীপ অঞ্চলে। যার জেরে এই মুহূর্তে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় সমস্ত এলাকা ফাঁকা করার কাজ চলছে। সুন্দরবনের সাগরদ্বীপ, ফ্রেজারগঞ্জ, নামখানা সহ আরও অনেক জায়গা এই মুহূর্তে ভয়ে আতঙ্কে দাঁড়িয়ে।

উত্তর ২৪ পরগনার হাসনাবাদ সামশেরনগর, হিঙ্গলগঞ্জ প্রভৃতি অঞ্চলে জারি করা হয়েছে চরম সর্তকতা। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে বুলবুলের প্রভাব এসে পড়বে। শুধু তাই নয় ঝড়ের গতিবেগ যা অনুমান করা যাচ্ছে তাতে প্রবল ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা। নদীবাঁধ ভেঙে জল প্লাবিত করতে পারে বহু জায়গা। কলকাতা উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রান্তিক এলাকার বহু স্কুল আগামীকাল ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরকে সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল থাকতে বলা হচ্ছে। পাশাপাশি যে সকল মৎস্যজীবী বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার জন্য ছিলেন তারাও যাতে নিরাপদে দ্রুত ফিরতে পারে তার জন্য ওয়াকিটকির মাধ্যমে যোগাযোগ করা হচ্ছে। নামখানা, ফ্রেজারগঞ্জ, হিঙ্গলগঞ্জ প্রভৃতি অঞ্চলে এখন চূড়ান্ত ব্যস্ততা। মাছ ধরার ট্রলার যাতে ক্ষতির সম্মুখীন না হয় সেজন্য সেগুলি পাড়ের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মাইকিং চলছে সব জায়গাতে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।