শরীরে বোমা বাঁধা যাত্রীর, বিমানের জরুরি অবতরণ কলকাতায়

ফোর্থ পিলার

তার গোটা শরীরে বোমা বাঁধা রয়েছে। যাত্রীর এহেন চিরকুট বিমানচালককে ভয় পাইয়ে দিয়েছিল। শেষপর্যন্ত গন্তব্যে না গিয়ে কলকাতা বিমানবন্দরে বিমানকে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলেন চালক।। খানাতল্লাশি করে কোনও বোমা বা ওই জাতীয় কিছু পাওয়া যায়নি। শেষপর্যন্ত বছর পঁচিশের ওই তরুণীকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনাটি শনিবার রাতে কলকাতা – মুম্বই এয়ার এশিয়ার একটি বিমানে ঘটেছে। ধৃত ওই তরুণীর নাম মোহিনী মণ্ডল।

শনিবার রাতে ৯ টা ৫৭ মিনিট নাগাদ এয়ার এশিয়ার আই ৫৩১৪ বিমানটি রওনা দিয়েছিল। কিছু সময় পর মোহিনী মণ্ডল নামে ওই যাত্রী কর্তব্যরত এক কর্মীকে ডেকে হাতে একটি চিরকুট দেন। বলা হয় সেটি বিমানচালককে দিতে। ককপিটে থাকা বিমানচালককে সেই কাগজ দেওয়া হয়। বিমানচালক দেখেন, লেখা রয়েছে ওই যাত্রীর গায়ে বোমা বাঁধা র‍য়েছে। কালবিলম্ব না করে ককপিট থেকে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল যোগাযোগ করা হয়।

বিপদের আশঙ্কায় বিমানটিকে কলকাতায় ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয়। সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স আসে। শুরু হয় যাত্রীদের তল্লাশি। গোটা বিমান তল্লাশি চালানো হয়। কিছু পাওয়া যায়নি। এরপর ওই যাত্রীকে গ্রেফতার করা হয় বোমাতঙ্ক ছড়ানোর জন্য। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, কেন তিনি এহেন কাজ করলেন। নিতান্তই মজা নাকি মানসিক অশান্তির জেরে এমন কাজ করেছেন তিনি। ধোঁয়াশা ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।