সালাউদ্দিন খুনে যাবজ্জীবন সাজা প্রেমিকা ও তার সঙ্গীর

ফোর্থ পিলার

সালাউদ্দিন খুনের মামলার সাজা শোনালো শিয়ালদহ আদালত। দুই ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডতে দণ্ডিত করা হয়েছে। এছাড়াও দুই হাজার টাকা করে জরিমানার কথা বলেছে আদালত। ২০১১ সালে গাড়ি ব্যবসায়ী সালাউদ্দিনকে গুলি করে খুন করা হয়েছিল। প্রেমিকা ও তার সঙ্গী এই খুনের সঙ্গে জড়িত। প্রেমিকা মিলি পাল ও তার সঙ্গী বাপি সাহাকে এই সাজা শোনানো হয়েছে।

২০১১ সালে উল্টোডাঙ্গা থানায় এক ব্যক্তি এসেছিলেন। সে সময় তিনি রক্তাক্ত। তিনি বলেন তার নাম সালাউদ্দিন। তাকে বিধাননগর ১৩ নম্বর ট্যাঙ্কের সামনে গুলি করা হয়েছে। নিজেই গাড়ি চালিয়ে থানায় এসেছিলেন সালাউদ্দিন। তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। থানাতেই তিনি মারা যান। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে। বীরভূমের মুরারই থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রেমিকা মিলি পালকে। তার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন মিলির আরেক সঙ্গী বাপি সাহা।

পুলিশ ঘটনা তদন্তে নেমে জানতে পারে মিলি সালাউদ্দিনের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিল। বাপির সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল। সালাউদ্দিন বিয়ে করতে অস্বীকার করে মিলিকে। এরপরেই তাকে সরিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত করা হয়। বাপি সাহা এই খুনের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। সালাউদ্দিনকে বিধাননগর ১৩ নম্বর ট্যাঙ্কের সামনে গাড়িতে ১৩টি গুলি করা হয়। গাড়ির মধ্যে সিগারেটের টুকরো পাওয়া গিয়েছিল। লালারসের ডিএনএ টেস্ট করার পরে দেখা যায় সেটি বাপি সেন খেয়েছিল।

এছাড়াও মিলি পালের দুই পরিচিত ঘটনায় সাক্ষ্য দিয়েছে। টিআই প্যারেডে বাপি সাহাকে চেনায় প্রত্যক্ষদর্শীরা। এরপর আর কিছু করার ছিল না। ৩৯ জনের সাক্ষ্যপ্রমাণ নিয়েছে আদালত। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কড়াভাবে চার্জশিট তৈরি করেছিল। আজ বুধবার শিয়ালদহ আদালতে এই মামলার রায় বেরোলো।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।