সিবিআই পৌঁছানোর আগেই অভিষেকের বাড়িতে মমতা

ফোর্থ পিলার

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পৌঁছে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর কিছু সময়ের মধ্যেই সিবিআইয়ের টিম অভিষেকের বাড়িতে হানা দেবে। অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা বন্দোপাধ্যায়কে আজ জেরা করার কথা রয়েছে। সেই জন্য নিজাম প্যালেস থেকে সিবিআই গোয়েন্দারা বেরিয়ে পড়েছেন বলে খবর। যে কোনও মুহূর্তে তারা পৌঁছে যেতে পারেন কালীঘাটের শান্তিনিকেতন বাড়িতে।

তার আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই বাড়িতে উপস্থিত হলেন। রাজনৈতিক মহলে এই ঘটনা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ওয়াকিবহাল মহল বলছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পিসি হন মমতা। তাই তিনি যেতে পারেন তার বাড়িতে। রেজিনাকে অত্যন্ত স্নেহ করেন তিনি। বাড়ির বউদের নিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থে টানাটানি কখনওই পছন্দ করেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি সভামঞ্চ থেকে একথা তিনি বলেছেন। তাকে নিয়ে যত খুশি আক্রমণ করা হোক। কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু বাড়ির ছোটদের রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করা হবে। এটি কিছুতেই তিনি মেনে নেবেন না।

সেই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে অভিষেকের বাড়িতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছেছেন। একথা মনে করা হচ্ছে। মিনিট আটেক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিষেকের বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন। সম্ভবত রুজিরাকে মনের জোর দেওয়ার জন্যই মুখ্যমন্ত্রী পৌঁছে গিয়েছিলেন তার কাছে। নবান্নের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী কালীঘাটের বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। শান্তিনিকেতনের সামনে এই মুহূর্তে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কলকাতা পুলিশের দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসাররা সেখানে আছেন। সাংবাদিকরা একটি নির্দিষ্ট জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

দেখা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয় বাড়ির সামনে দাঁড়ায়। নেমে পড়েন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি ঢুকে যান বাড়ির ভিতরে। গতকাল রুজিরার বোন মেনকা গম্ভীরকে প্রায় তিন ঘণ্টা জেরা করেছে সিবিআই। লন্ডনের ব্যাঙ্ক একাউন্টে বিশাল টাকার লেনদেন হয়েছে। কোথা থেকে এল এই টাকা? সেই নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে সিবিআইয়ের কাছে। সেই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়েছেন কি মেনকা? এই নিয়ে কোনও তথ্য সিবিআই দেয়নি। আজ রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জেরা করবে সিবিআই। তার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতি রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।