সেলফি কুইন, মোবাইল ফোন দেখলেই শুরু পোজ দেওয়া

ফোর্থ পিলার

এক্কেবারে সেলফি কুইন। হাতের মোবাইল ফোন উপরের দিকে উঠলেই সঙ্গে সঙ্গে পোজ দেওয়া শুরু হয়ে যায়। ফ্রন্ট ক্যামেরায় তারা নিজেরাই দেখে নেয় তাদের অঙ্গভঙ্গি। ‘ওয়ার্ল্ড রেঞ্জার ডে’ উপলক্ষে পুরনো একটি পোস্ট শেয়ার হয়েছে। আর সেখান থেকেই খোঁজ মিলেছে দুই গোরিলার। তারা ছবি তুলতে বড় বেশি ভালোবাসে।

কঙ্গো ভিরুঙ্গা ন্যাশনাল পার্কে তাদের বসবাস। একজনের নাম নাদাকাসি, অন্যজন নাদেজে। ছোটবেলায় তারা অনাথ হয়ে গিয়েছিল। তাদের উদ্ধার করে ন্যাশনাল পার্কে নিয়ে আসা হয়। এখন তারা সেখানেই বেড়ে উঠেছে। তাদের দেখাশোনার দায়িত্বে ম্যাথু ও প্যাটিক নামে দুই ব্যক্তি রয়েছেন। তাদের সঙ্গেই দুই গোরিলার যত ছবি তোলা।

ম্যাথু ও প্যাটিক মোবাইল ফোন বার করলেই তারা পোজ দিতে শুরু করে। একের পর এক ছবি উঠে যায় তাদের। প্রতিটি ছবির ক্ষেত্রে নতুন নতুন ভঙ্গিমা। দুই গোরিলা বরাবর এক অন্য ভাবনাচিন্তায় ক্যামেরার সামনে আবির্ভূত হয়। সে কথা বলাই বাহুল্য। তাদের ছবি সম্বলিত পোস্ট অনেক আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখা গিয়েছিল। ৩১ জুলাই ‘ওয়ার্ল্ড রেঞ্জার ডে’। ওইদিন মানে গতকাল সেই পোস্ট আবার শেয়ার হয়েছে টুইটারে। তারপর থেকেই পোস্ট ভাইরাল।

সুদূর কঙ্গো অববাহিকার এই দুই গোরিলা গতকাল থেকেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট মাতিয়ে তুলেছে। বহু মানুষ মন্তব্য করেছেন তাদের ছবি দেখে। রীতিমতো কোমরে হাত দিয়ে দাঁড়ানো থেকে চোখ মুখ কুঁচকে ছবি তোলায় মাতিয়ে দিয়েছেন দুজনে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।