স্নান করতে নেমে গঙ্গায় তলিয়ে গেল পাঁচ পড়ুয়া, পরে উদ্ধার ৩

ফোর্থ পিলার

স্নান করতে নেমে গঙ্গায় তলিয়ে গেল পাঁচ পড়ুয়া। তাদের প্রত্যেকের বয়স সাত থেকে ১৭ বছরের মধ্যে। তিনজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি দুজন নিখোঁজ। ডুবুরি তল্লাশি চালাচ্ছে। মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জ এলাকায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। গঙ্গায় যথেষ্ট স্রোত রয়েছে। তাই দূরে ভেসে যাওয়ার সম্ভাবনা যথেষ্ট বেশি। গঙ্গার পাড়ে রয়েছে তাদের উদ্বিগ্ন পরিবার ও অন্যান্যরা।

ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জে। পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার সকালে পাঁচ পড়ুয়া স্নান করার জন্য যায় লোহারপুর ঘাটে। ইয়াসিন মোমিন (৭), রওশন শেখ (৮), সাকিবুল ইসলাম (৮), খাতিজা সুলতানা (৯) ও কায়েমা খাতুন (১৭) এই পাঁচজন। কায়েমা ছাড়া বাকি সবার বয়স ১০ বছরের নীচে। তারা জলে নেমেছিল।।গঙ্গায় স্রোত ছিল ভালোই। কায়েমা ঘাটে উঠে এসেছিল জল থেকে।

সেই সময় বিশেষ কেউ ঘাটে ছিল না। বাকি চারজন স্রোতের টানে তলিয়ে যেতে থাকে। কায়েমা এই দৃশ্য দেখতে পায়। ওই চারজনকে বাঁচাতে নিজে ফের জলে নামে কায়েমা। এবার সেও তলিয়ে যেতে শুরু করে। স্রোতের টানে তারা ভেসে যেতে শুরু করে। দূরে কিছু মানুষ ছিল। তারা এটি দেখতে পায়।

স্থানীয়রা দেখতে পায় পাঁচ পড়ুয়া গঙ্গায় ভেসে যাচ্ছে। তারাই খবর দেয় এলাকায়। পুলিশের খবর যায়। উদ্ধারের জন্য গঙ্গায় ঝাঁপ দেয় লোকজন। স্রোতের যথেষ্ট টান রয়েছে। ইতিমধ্যে অনেকটা ভেসে গিয়েছে তারা তিন জনকে উদ্ধার করে পাড়ে নিয়ে আসা হয়। জল খেয়ে তারা যথেষ্ট। অসুস্থ তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা চলছে। বিপজ্জনক অবস্থা কাটলেও তারা অসুস্থ। বাকি দুজনের খোঁজ পাওয়া যায়নি। ডুবুরি নামিয়ে খোঁজ চালানো হয়। সন্ধ্যেবেলা এই খবর লেখা পর্যন্ত তাদের কোনও খোঁজ মেলেনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।