স্বস্তির কথা, বিকেলের পর ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গে

ফোর্থ পিলার

অবশেষে স্বস্তির কথা শোনালো আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সপ্তাহ শেষে আজ দক্ষিণবঙ্গে কালবৈশাখীর সম্ভাবনা জারি হয়েছে। আজ বিকেলে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। শুধু আজ নয়, রবি ও সোমবার ঝড়বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। গত প্রায় এক মাস ধরে তীব্র দাবদাহে চলছে দক্ষিণবঙ্গে।

তাপমাত্রা কার্যত রেকর্ড তৈরি করেছে। কলকাতার বৃষ্টির জন্য হাঁসফাঁস করছিল। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, আজ শনিবার বিকেলে ৩০-৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত ঝড় বইতে পারে। সঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পশ্চিমের জেলাগুলিতে এই ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা আরও বেশি। সেখানে কালবৈশাখীর গতিবেগ আরও বেশি থাকতে পারে। আগামী কাল রবিবার ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড় হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

আজ শনিবার বিকেলে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। আজ শনিবার দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের উপরে থাকবে। সকাল থেকেই গরম বাড়ছে। তবে বিকেলের পর কিছুটা মনোরম আবহাওয়া পাওয়া যেতে পারে। এই সম্ভাবনার কথা শোনানো হচ্ছে। গতকাল রেকর্ড গরম পড়েছিল কলকাতায়। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৯.৪ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড। স্বাভাবিকের থেকে সাড়ে চার ডিগ্রি বেশি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.২ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড, স্বাভাবিক। বৃষ্টি হলে পরিস্থিতি কিছুটা উন্নত হবে। এই কথা বলছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলার ওপর দিয়েই কালবৈশাখী বয়ে যেতে পারে। পশ্চিমের জেলাগুলিতে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা ও তীব্রতা বেশি থাকবে। সেখানে ঝড়ের গতিবেগ ৪০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে হতে পারে। শিলাবৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনাও আছে কিছু জায়গায়। পশ্চিমী শুষ্ক বায়ু ও দক্ষিণের আর্দ্র বায়ুর সম্মিলন ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে। সমুদ্র থেকে প্রচুর জলীয় বাস্প স্থলভাগে ঢুকতে শুরু করেছে। এদিকে স্থলভাগের তাপমাত্রা অনেকটাও বেশি। বর্জ্রগর্ভ মেঘ তৈরি হওয়ার সম্পূর্ণ ক্ষেত্রে তৈরি হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।