১৪ দিনের হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হল সতীশ কুমারকে

ফোর্থ পিলার

গরু পাচারে গ্রেফতার হয়েছেন বিএসএফের কমান্ড্যান্ট সতীশ কুমার। আদালত তাকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে। আসানসোলে বিশেষ সিবিআই আদালতে তাকে আজ তোলা হয়েছিল। সরকারি পক্ষের আইনজীবী তার বিরুদ্ধে একাধিক তথ্য নিয়ে এসেছেন। সওয়াল-জবাব চলেছে। শেষ পর্যন্ত বিচারক তাকে ১৪ দিনের হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

সিবিআইয়ের পক্ষে আইনজীবী জানাচ্ছেন, ধৃত ওই ব্যক্তির শ্বশুর রিজার্ভ ব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। তার ব্যাঙ্ক একাউন্টে ১৩ কোটি টাকা রয়েছে। ২০১৫ থেকে ২০১৭ সালে পশ্চিমবঙ্গের সীমান্ত সতীশ কর্মরত ছিলেন। গরু পাচারের মোটা টাকা তার ভাগে আসত। ব্যাঙ্কের একাউন্ট -এর টাকা সেখান থেকেই ফুলে-ফেঁপে উঠেছে। একাধিক অভিযোগ রয়েছে সতীশ কুমারের বিরুদ্ধে। তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। সিবিআই তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে আরও তথ্য বার করার চেষ্টা চালাবে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গ্রেফতার করা হয় বিএসএফের সাউথ বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ার ৩৬ নম্বর ব্যাটালিয়নের প্রাক্তন কমান্ড্যান্ট সতীশ কুমারকে। তিনি বর্তমানে ছত্রিশগড়ের রায়পুর কর্মরত। তিনি সিবিআই জেরা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করছিলেন। মঙ্গলবার শেষ পর্যন্ত সিবিআইয়ের মুখোমুখি হতে হয়। এরপরেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। কলকাতার নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে তাকে নিয়ে গিয়ে দীর্ঘক্ষণ জেরা চলেছিল। আজ আসানসোল আদালতে হাজির করানো হয়।

গত ২২ সেপ্টেম্বর সতীশ কুমারের সল্টলেক, উত্তরপ্রদেশ ও ছত্রিশগড়ের বাড়ি সহ ১৩ জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। সীমান্তে গরু পাচারের সঙ্গে তার প্রত্যক্ষ যোগাযোগ আছে। এই অভিযোগ আরও দৃঢ় হয়। একাধিক কাগজপত্র পাওয়া গিয়েছিল তার বাড়ি থেকে। ২০১৫ সাল থেকে ১৭ সালের এপ্রিল পর্যন্ত মালদায় তিনি দায়িত্বে ছিলেন। তিনি অন্তত ২০ হাজার গরু উদ্ধার করেছিলেন পাচারের সময়। সিবিআই তদন্ত দেখা যায় বিএসএফের নথিতে গরুর উল্লেখ পর্যন্ত নেই।

তার মাধ্যমেই এই গরু পাচার হয়ে যেত। মোটা টাকা সেজন্য সতীশের কাছে আসত৷ একথা জানা যাচ্ছে। গরুপাচারের মামলায় গত ৬ নভেম্বর সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল এনামুল হক। সে মুর্শিদাবাদের ব্যবসায়ী। গরু পাচারের ক্ষেত্রে এনামুলের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ছিল সতীশ। একথা মনে করা হচ্ছে। এনামুল এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্ত। তাকে বাড়িতে আইসোলেনে ১৪ দিনের জন্য রাখা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।