৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্রিটেনের সঙ্গে ভারত বিমান পরিসেবা ছিন্ন করল

ফোর্থ পিলার

ভারত ও ব্রিটেনের মধ্যে বিমান পরিষেবা বন্ধের মেয়াদ বাড়ানো হল। আগামী ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্রিটেনে ভারত থেকে কোনও অসামরিক বিমান চলাচল করবে না যাত্রী নিয়ে। পাশাপাশি ব্রিটেন থেকে ভারতে বিমান আশার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছে সংবাদমাধ্যমকে। মিউট্যান্ট ভাইরাস আটকানোর জন্যই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হল।

কেন্দ্রীয় সামরিক বিমান মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি টুইট করেছেন এই বিষয়ে। মন্ত্রী লিখেছেন, আগামী ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত সব অসামরিক বিমান দুই দেশের মধ্যে বন্ধ রাখা হয়েছে। এর আগে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই বিমান পরিসেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। প্রথমে জানা গিয়েছিল ব্রিটেন থেকে আসা ৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আজ বুধবার জানা যায় সেই সংখ্যাটি আসলে ২০।

২৪ ঘণ্টার মধ্যে এত জনের সংক্রমণের খবর আশায় দুশ্চিন্তা তৈরি হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকে। অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, মহারাষ্ট্র রাজ্যে সংক্রমণের হদিস মিলেছে। আজ কলকাতাতেও একজনের শরীরে মিউট্যান্ট ভাইরাসের খোঁজ মিলেছে। তিনি এই মুহূর্তে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কেন্দ্রীয় সরকার জানাচ্ছে, ২০ জনকে এই মুহূর্তে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা করা হচ্ছে। চিকিৎসার বন্দোবস্ত করা হবে প্রয়োজনীয় ভিত্তিতে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, গত ২৫ নভেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বরের মধ্যে ব্রিটেন থেকে কলকাতায় ৪৩৭১ একজন যাত্রী এসেছেন। তাদের মধ্যে ১০৪ জন যাত্রী এই রাজ্যের বাসিন্দা। ৮৩ জন কলকাতায় থাকেন। এই সময়ের মধ্যে ভারতে ব্রিটেন থেকে ৩৩ হাজার মানুষ এসেছেন। তাদের শরীরে করোনার এই নতুন সংক্রমণ রয়েছে কিনা তার খোঁজ চলছে।
ভারতে এই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে ইতিমধ্যেই।

ব্রিটেনের নতুন স্ট্রেন রীতিমতো দুশ্চিন্তায় ফেলেছে বিজ্ঞানীদের। করোনা ভাইরাস তার চরিত্র দ্রুত বদল করে আরও বেশি ছোঁয়াচে হয়ে উঠেছে। বি.১.১.৭ ভাইরাল স্ট্রেন এই মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়েছে ব্রিটেনে। দক্ষিণ আফ্রিকায় সার্স কভ ২ ভাইরাসের এই নয়া ভ্যারিয়ান্টের নাম নাম ‘৫০১. ভি২’। আরও অনেক বেশি এর সংক্রমণ ক্ষমতা। কতজন নতুন এই করোনা সংক্রমণে শিকার হয়েছেন? এখনও জানা যাচ্ছে না সেটি।তবে বিজ্ঞানীদের বক্তব্য দ্রুত তাদের সুস্থ করা যাবে। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কথা দ্রুত এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।